সুইজারল্যান্ডেরএকটি দাতব্য সংস্থার অফিসের সামনে অভিবাসনপ্রত্যাশীরা। ফাইল ফটো। রয়র্টাস/আর্নড ভিগম্যান
সুইজারল্যান্ডেরএকটি দাতব্য সংস্থার অফিসের সামনে অভিবাসনপ্রত্যাশীরা। ফাইল ফটো। রয়র্টাস/আর্নড ভিগম্যান

এশিয়া ও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে থেকে আসা হাজার হাজার শরণার্থীকে জার্মানি ও ফ্রান্সের সীমান্তের দিকে ঠেলে দিচ্ছে সুইজারল্যান্ড, এমন অভিযোগ জার্মান রাজনীতিবিদদের।

সুইজারল্যান্ডের এন জেড জেড সংবাদপত্রকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সুইজারল্যান্ডের কেন্টন অব সেন্ট গ্যালনের এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, "আমরা শররণার্থীদের সামনের দিকে যেতে দিচ্ছি।"

পুলিশ কর্মকর্তার এই সাক্ষাৎকারের পরই এমন মন্তব্য করেন জার্মান রাজনীতিবিদ আন্দ্রেয়া লিন্ডহোলজ। জার্মান সংসদের বিরোধী দলের এই মুখপাত্র বলেন, প্রতিবেদনটি সত্যি হয়ে থাকলে বোঝা যাচ্ছে, সুইজারল্যান্ড শরণার্থীদের দলে দলে সীমান্তের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। 

তার আগে সুইজারল্যান্ডের টেলিভিশনের এক সংবাদে বলা হয়, দেশটির রেল কোম্পানি এসবিবি পার্শ্ববর্তী দেশ অস্ট্রিয়া থেকে সীমান্তবর্তী বুখস শহরে আসা শরণার্থীদের জন্য আলাদা কামরার ব্যবস্থা করেছে। এরপর এসকল শরণার্থী বাসেল হয়ে রাজধানী জুরিখে প্রবেশ করছে।

পড়ুন: ‘উদ্ধারকাজে নিয়োজিত জার্মান বিমানে গুলি করার হুমকি লিবিয়ার’ 

লিন্ডহোলজ বলেন, "সুইজারল্যান্ড সরকার শরর্ণাথীদের অবৈধভাবে জার্মানিতে প্রবেশের সুযোগ করে দিচ্ছে।" তিনি সুইস কর্তৃপক্ষকে পরিস্থিতি সামলাতে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান।

সুইজারল্যান্ডকে অবশ্যই শেঙ্গেন এলাকার নীতিমালা মেনে চলতে হবে এবং শরণার্থীদের অবৈধ প্রবেশ ঠেকাতে কাজ করতে হবে।

এদিকে সুইজারল্যান্ডের মাইগ্রেশন দপ্তরের একজন মুখপাত্র বলেন, ''শরণার্থীদের আটক করার কোনো আইনি বৈধতা নেই। ডাবলিন নীতিমালা আরোপ হওয়ার আগেই তারা লম্বা পথ পাড়ি দিয়ে এসেছে।"

আরআর/কেএম (ডিপিএ)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন