লিবিয়া

সিসিলির কাম্পোবেলো ডি মাজারা আশ্রয়কেন্দ্রে বাংলাদেশি অভিবাসীরা৷ ছবি. এমা ওয়ালিস
(ফাইল ছবি) লিবিয়া উপকূলে একটি নৌকা থেকে অভিবাসীদের উদ্ধার করে ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীদের উদ্ধারকারী জাহাজ ওশান ভাইকিং। ছবি: এসওএস মেডিটেরানে
(ফাইল ছবি) নাইজার থেকে লিবিয়ার উদ্দেশ্যে যাত্রারত একদল অভিবাসী। যারা লিবিয়া থেকে  ইউরোপে পোঁছানোর চেষ্টা করবেন। ছবিটি ২০১৫ সালে তোলা। ছবি: এএফপি
ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে অভিবাসীরা প্রায়ই ইউরোপে পৌঁছানোর চেষ্টা করে থাকেন৷ ফাইল ফটো৷ লেনন সালনের/সিওয়াচ টুইটার
৩৮ বাংলাদেশি নিয়ে লিবিয়া উপকূল থেকে যাত্রার পর মাঝ সমুদ্রে খাবার ও তেল সংকটে পড়ে যায় যাত্রীরা। ছবি: ব্যক্তিগত
লিবিয়ায় শরণার্থী ও অভিবাসীদের উপর অমানবিক নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। ছবি: রয়টার্স
মধ্য ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীদের উদ্ধারে নিয়োজিত দ্য ওশান ভাইকিং৷ ছবি : পিকচার অ্যালায়েন্স
ফাইল থেকে:  ২০২০ সালের ১৩ নভেম্বর ভূমধ্যসাগরে লিবিয়ার উপকূলে, একটি উদ্ধার অভিযানের সময় একটি রাবার ডিঙিতে অভিবাসীদের ছবি তোলা হয়েছে।ছবি: রয়টার্স/স্ট্রিংগার
ত্রিপোলির প্রায় ১২০ কিলোমিটার পূর্বে খোমসে লিবিয়ার উপকূলরক্ষীরা সমুদ্র থেকে অভিবাসীদের  নিজেদের জাহাজে তুলে নেয়৷ ছবি: এপি ছবি/হাজেম আহমেদ, ফাইল
(ফাইল ছবি) লিবিয়ায় অভিবাসীদের উদ্যোগে আয়োজিত একটি সমাবেশ। ছবি : রিফিউজি ইন লিবিয়া
টিউনিশিয়ার উপকূল থেকে ইটালির লাম্পেদুসার দুরত্ব ১৪০ কিলোমিটার৷ ছবি: ফ্লিকার
সুদান থেকে লিবিয়া  যাওয়ার পথে এই অভিবাসীরা যাত্রা শেষ করতে পারেনি৷ ছবি: পিকচার অ্যালায়েন্স