বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে জলবায়ু উদ্বাস্তুর সংখ্যা বাড়তে পারে। ছবিঃNASA/NOAA
বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে জলবায়ু উদ্বাস্তুর সংখ্যা বাড়তে পারে। ছবিঃNASA/NOAA

সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়ার কারণে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় জলবায়ু উদ্বাস্তু বাড়বে, যা দেশের ৬৪টি জেলার জনজীবনে প্রভাব ফেলবে৷ নতুন একটি গবেষণা এমনটাই দাবি করেছে৷ জলবায়ু উদ্বাস্তু সঙ্কটের কারণে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের অন্তত ১৩ লাখ মানুষের উপর এর প্রভাব পড়বে।


অ্যামেরিকান জিওফিজিক্যাল ইউনিয়ন নামের একটি গবষণা সংস্থা এমন ধারণা করছে। গাণিতিকি পদ্ধতিতে করা এ গবেষণায় বলা হয়, ২০৫০ সালের মধ্যে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়ার ফলে উদ্বাস্তুরা বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়বে। ফলে দেশের নানা অঞ্চলের অন্তত ১৩ লাখ মানুষ এর প্রভাব টের পাবেন।  

উল্লেখ্য, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে চলতি শতকে বিশ্বের উপকূলীয় এলাকার প্রায় ৬০ কোটি মানুষ হুমকির মুখে রয়েছে। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে তারা উদ্বাস্তু বলে বিভিন্ন গবেষণা প্রতিবেদনের আশঙ্কা।     

এদিকে অ্যামেরেকিান জিওফিজিক্যাল ইউনয়িনের গবেষণাটি বলছে, এক সময় রাজধানী ঢাকার উপর জনসংখ্যার চাপ কমে আসতে পারে। বাংলাদেশে অভ্যন্তরীণ অভিবাসনের মূল কেন্দ্র ঢাকা। যে কারণে অভিবাসীরা প্রথমে রাজধানীমুখী হবেন। আর তাই রাজধানীতে জনসংখ্যার চাপ বাড়বে। জনসংখ্যার এ চাপের কারণেই অনেকে রাজধানী ত্যাগ করবেন, ফলে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে উদ্বাস্তু জনগোষ্ঠীর কিছু মানুষ প্রবেশ করবেন৷ 

গবেষকদের দাবি, তাদের প্রাপ্ত তথ্য জলবায়ুর প্রভাব মোকাবিলায় প্রস্তুতি নিতে সহায়ক হবে।

গবেষণা মডেলে অবশ্য মানব আচরণের কথাও তুলে ধরা হয়েছে৷ অর্থাৎ যারা উদ্বাস্তু হবেন, তারা যদি আবার নিজ এলাকায় ফিরে আসতে চান তখন কি হবে!

ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের ঢাকার পরিচালক সলিমুল হক বলেছেন, ‘‘গবেষণায় অভিবাসনের ব্যাপারে উদ্বাস্তু মানুষের সিদ্ধান্ত নেয়ার ব্যাপারে মানুষের জটিল আচরণের দিকে সঠিকভাবে ফোকাস করা হয়েছে৷ ঢাকা ছাড়া দেশের বড় শহরগুলোতে জলবায়ু উদ্বাস্তুদের গ্রহণের জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে৷ ’’


আরআর/এপিবি (রয়টার্স)


 

অন্যান্য প্রতিবেদন