(ফাইল ছবি) স্পেনের উদ্ধারকারীরা আটলান্টিকে ভাসমান একটি নৌকা থেকে অভিবাসীদের উদ্ধার করছে৷ ছবি: সাসেমার
(ফাইল ছবি) স্পেনের উদ্ধারকারীরা আটলান্টিকে ভাসমান একটি নৌকা থেকে অভিবাসীদের উদ্ধার করছে৷ ছবি: সাসেমার

গত এক সপ্তাহে মরক্কোর নৌবাহিনীর সদস্যরা আটলান্টিক মহাসাগরে চারশ অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে। অন্যদিকে, মধ্য ভূমধ্যসাগরের রুটে লিবিয়া থেকে ইউরোপ পাড়ি দিতে গিয়ে অন্তত ১৮ অভিবাসনপ্রত্যাশীর প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে।

মরক্কোর সরকারি সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, গত সপ্তাহ থেকে মরক্কো থেকে ইউরোপের উদ্দেশ্যে যাত্রা করা চারশ অভিবাসনপ্রত্যাশীদের বিপন্ন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এই অভিবাসনপ্রত্যাশীরা যে ডিঙি নৌকায় চেপে রওয়ানা দেন, তা পথ হারিয়ে ফেলে।

এই ধরনের অভিবাসনপ্রত্যাশীবাহী নৌকা সাধারণত ক্ষমতার চেয়ে বেশি যাত্রীদের নিয়ে থাকে, যা সাগরে ঢেউয়ের কবলে পড়লে খুব অল্পেই উল্টে যেতে পারে।

মরক্কোর সরকারি সংবাদসংস্থা এমএপি সোমবার জানিয়েছে, উদ্ধার হওয়া ৪৩৮জনকে সাগর থেকে মরক্কোর উপকূলে এনে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এই অভিবাসনপ্রত্যাশীদের বেশির ভাগই সাব-সাহারান অঞ্চলের নাগরিক।

মরক্কোর উপকূল থেকে ইউরোপের তীর মাত্র ১০০ কিলোমিটারের দূরত্ব হলেও এই পথে দুর্ঘটনা ঘটে অহরহ। আটলান্টিক মহাসাগরের এই অংশে তীব্র গতির ঢেউ ঠুনকো ডিঙি নৌকাকে সহজেই উল্টে দিতে পারে।

ফলে, এই পথে যাত্রা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

লিবিয়ার উপকূলে প্রাণহানি

মঙ্গলবার লিবিয়ার তীরবর্তী শহর জুয়ারার সীমান্তরক্ষীর বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, রোববার রাতে তারা ভূমধ্যসাগর থেকে ৫১জন অভিবাসনপ্রত্যাশীদের উদ্ধার করেছে।

বেঁচে ফেরা অভিবাসনপ্রত্যাশীরা জানিয়েছেন ১৮জন অভিবাসনপ্রত্যাশী সাগরে তলিয়ে গেছেন, যারা প্রত্যেকেই ছিলেন মিশরের নাগরিক।

এর আগে, ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন বা আইওএম জানিয়েছে, এক নারী ও এক শিশুসহ মোট ১৬জন প্রাণ হারিয়েছেন এই দুর্ঘটনায়।

ঠিক কী কারণে এই নৌকাডুবি, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে, উত্তর আফ্রিকার তট থেকে ছোট, ভঙ্গুর নৌকা অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে রাতের অন্ধকারে ইউরোপের উদ্দেশ্যে পাড়ি দিয়ে থাকে। এতে করে, সীমান্তরক্ষীদের চোখ এড়াতে পারে তারা।

কিন্তু একই সময়ে সাগরে জোয়ারও থাকে বেশ শক্তিশালী, যা এইসব নৌকাকে ডুবিয়ে দেয়।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের তথ্য বলছে, ২০২১ সালের প্রথমার্ধ্বে তেরো হাজারেরও বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সাগরে উদ্ধার করেছে লিবিয়া কর্তৃপক্ষ। এই সংখ্যা বর্তমানে ২০ হাজার ২৫৭ হয়েছে বলে জানাচ্ছে আইওএম।

এসএস/এফএস (এএফপি)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন