ফ্রান্সের পুলিশের ব্যবহৃত একটি গাড়ি। ছবিঃ @PoliceNat62 / Twitter
ফ্রান্সের পুলিশের ব্যবহৃত একটি গাড়ি। ছবিঃ @PoliceNat62 / Twitter

সেপ্টেম্বর মাসের বিভিন্ন সময়ে ফ্রান্স-স্পেন সীমান্তে অবস্থিত ফরাসি ডিপার্টমেন্ট হউত গারোন থেকে আট আলজেরীয় পাচারকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। স্থানীয় প্রেফেকচুরের মতে, আটককৃতরা গাড়ীতে করে প্রায় ত্রিশজন অভিবাসীকে স্পেনের লেরিদা থেকে ফ্রান্সের তুলুজ স্টেশনে নিয়ে এসেছিল।

হউত গারোন প্রেফেকচুর মঙ্গলবার জানিয়েছে, সাঁ-গউদন্স প্রসিকিউটর দপ্তরের তত্ত্বাবধানে তুলুজ সীমান্ত পুলিশ সেপ্টেম্বরের বিভিন্ন সময়ে ৮ জন পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেছে।

ডিপার্টমেন্টের লেস্তেলল-দ-সাঁ-মার্তরি এবং মেল-পঁ-দ্যু-রোয়া নামে দুটি টোল বুথে এই গ্রেফতার অভিযানগুলো চালানো হয়েছিল। 

এই আট পাচারকারীদের কাছে স্পেনের আবাসনের অনুমতি বা রেসিডেন্ট পারমিট পাওয়া গেছে। 

অর্থ্যাৎ তারা সেখানে বৈধভাবে বসবাসের সুযোগ নিয়ে পাচার কাজে জড়িত ছিল। স্পেনের লেরিদা থেকে ফ্রান্সের তুলুজ পর্যন্ত পৌঁছে দিতে গড়ে একজন অভিবাসীর কাছ থেকে তারা ২০০ থেকে ৫০০ ইউরো পর্যন্ত অর্থ আদায় করত।  

৪ মাস থেকে ১ বছর কারাদণ্ড

সম্প্রতি অবৈধভাবে স্পেনে প্রবেশ করা প্রায় ত্রিশজন অভিবাসীকে (যাদের অধিকাংশ আলজেরিয়ান) গাড়ীযোগে ফ্রান্সে নিয়ে আসা হয়েছিল। তাদের সবাইকে আবার স্পেনে ফেরত পাঠানো হয়েছে। আটককৃত পাচারাকারীদের সাঁ-গউদেন্সের আদালতে হাজির করা হয়েছিল।

পরবর্তীতে তাদেরকে বিভিন্ন মেয়াদে চার মাস থেকে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সাজাপ্রাপ্তদের সবাইকে ডিপার্টমেন্টের সেইস নামক কারাগারে স্থানান্তর করা হয়ে। সাজার পাশপাশি অতিরিক্ত জরিমানা হিসেবে তাদেরকে দুই থেকে তিন বছরের জন্য ফরাসি ভূখণ্ডে প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়।  

হউত গারোন প্রেফেকচুরের সীমান্ত পুলিশের তদন্ত অনুযায়ী, এই চোরাচালানীদের কাছ থেকে অবৈধ অভিবাসনের "আরও অনেক পথ" সম্পর্কে জানা যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।



এমএইউ/এআই (ফ্রান্সব্লু) 


 

অন্যান্য প্রতিবেদন