বসনিয়া সীমান্তের মালজেভাক পয়েন্টে দায়িত্বরত ক্রোয়েশিয়ান বর্ডার পুলিশের একটি দল। ছবিসূ্ত্রঃ  EPA/Fehim Demir
বসনিয়া সীমান্তের মালজেভাক পয়েন্টে দায়িত্বরত ক্রোয়েশিয়ান বর্ডার পুলিশের একটি দল। ছবিসূ্ত্রঃ EPA/Fehim Demir

ক্রোয়েশিয়ার পুলিশ অধিদপ্তর সোমবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বসনিয়ার সীমান্তে অভিবাসীদের বিরুদ্ধে সহিংসতায় অংশগ্রহণকারী তিন ক্রোয়েশীয় সীমান্ত পুলিশ কর্মকর্তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

গত সপ্তাহে, ক্রোয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড্যাভার বোসিনোভিচ নিশ্চিত করেছিলেন, দাঙ্গা-বিরোধী ইউনিটের পুলিশ সদস্যরা তারা, যাদেরকে জুন মাসে ক্রোয়েশিয়া-বসনিয়া সীমান্তে আন্তর্জাতিক অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের একটি ভিডিওতে দেখা গেছে।

প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, অভিযুক্তদের মুখ ঢাকা ছিল এবং তারা কোনো সরকারি ইউনিফর্ম পরিহিত ছিলেন না। অভিবাসীদের উদ্দেশ্যে "বসনিয়া যাও!" বলে চিৎকার করে তাদেরকে সীমান্তের অন্য প্রান্তে জোরপূর্বক ধাক্কা দেওয়ার আগে কমপক্ষে চারজন অভিবাসীকে ব্যাপক মারধর করা হয়েছিল।

বহু বছর ধরে ক্রোয়েশিয়ান পুলিশের বিরুদ্ধে মানবাধিকার সংস্থা এবং সংবাদমাধ্যমগুলো জোরপূর্বক পুশব্যাক করার সময় সহিংসতার অভিযোগ করে আসছে ।

তবে সন্দেহ করা হচ্ছে, বর্ডার পুলিশ কর্মীদের এই আচরণের জন্য পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন রয়েছে।

তিন জন অভিযুক্ত বর্ডার পুলিশের বিরুদ্ধে শুরু হওয়া শাস্তিমূলক প্রক্রিয়াটি মূলত এই তিনজনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। উল্টো এর সাহায্যে উচ্চপদস্থদের ছাড় দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ এনেছে অধিকার সংগঠনগুলো।

সরকারি সূত্র মতে, এই তিন পুলিশ সদস্যের মধ্যে মূল অভিযোগ হচ্ছে, তারা দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলার বিরুদ্ধে কাজ করার ফলে "ক্রোয়েশিয়ান পুলিশের সম্মান ও সুনামের ক্ষতি হয়েছে"।

বিভিন্ন এনজিও ও অধিকার সংগঠনগুলো পুলিশ বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছে।



এমএইউ/এসএস

 

অন্যান্য প্রতিবেদন