(ফাইল ছবি) ক্যানারি দ্বীপে অভিবাসন প্রত্যাশীদের একটি দল। ছবিঃ ইমাগো
(ফাইল ছবি) ক্যানারি দ্বীপে অভিবাসন প্রত্যাশীদের একটি দল। ছবিঃ ইমাগো

স্প্যানিশ সীমান্ত রক্ষী জানিয়েছে, ৪৪জন অভিবাসীকে বহনকারী একটি নৌকায় একজন ব্যক্তিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে। উল্লেখ্য এক সপ্তাহ সমুদ্রে থাকার পর রোববার ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের গ্র্যান ক্যানারিয়ায় এসে পৌঁছে অভিবাসীদের বহনকারী এই নৌকাটি।

কোস্ট গার্ডের একজন মুখপাত্র বলেন, জাহাজটি দ্বীপের দক্ষিণে অবস্থিত আনফি-দেল-মার সৈকতের কাছে আসার পর উদ্ধার অভিযান শুরু করা হয়।

তিনি আরো বলেন, নৌকায় থাকা নাবালকসহ ৪৪জন অভিবাসীকে সফলভাবে উদ্ধার করা হয়েছে। অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সবাই মাগরেব অঞ্চল (আলজেরিয়া, টিউনিশিয়া, মরক্কো) থেকে আসা। নির্ধারিত প্রশাসনিক যাচাই বাছাইয়ের জন্য নিকটবর্তী আর্গুইনগুইন বন্দরে নিয়ে যাওয়ার আগে তাদের সবার জন্য প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। নৌকাটি মরক্কো থেকে স্পেনের উদ্দেশ্যে পাড়ি দিয়েছিল বলে জানা গেছে।

এদিকে, রোববার স্প্যানিশ কোস্ট গার্ড দক্ষিণ উপকূলে আরেকজন অভিবাসীর মৃতদেহ খুঁজে পেয়েছে। এটি বৃহস্পতিবার কেপ ট্রাফালগার অঞ্চলের পশ্চিমে দেখতে পাওয়া একটি অভিবাসীদের বহনকারী নৌকা বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এর ফলে মৃতদেহের সংখ্যা নয়জনে পৌঁছেছে, অন্যদিকে এই নৌকায় থাকা ১৬জন অভিবাসী এখনও নিখোঁজ রয়েছে। নৌকাটিতে দুজনকে জীবিত অবস্থায় এবং একজন নারী অভিবাসনপ্রত্যাশীকে সমুদ্র থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল।

উপকূলরক্ষী বাহিনী রোববার বালিয়েরিক দ্বীপপুঞ্জ থেকে ১৬ টি নৌকা উদ্ধার করে, চারজন নারীসহ ২০৩জনকে আশ্রয় দিয়েছে। উত্তর আফ্রিকা থেকে আসা অভিবাসীদের জন্য ইউরোপের অন্যতম প্রধান প্রবেশ পথ স্পেনের বিভিন্ন দ্বীপপুঞ্জ।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে, জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে স্পেনের বালিয়ারিক বা ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ থেকে ২৭ হাজারেরও এরও বেশি অভিবাসী সমুদ্রপথে পৌঁছেছে যা ২০২০ সালের তুলনায় ৫৪ শতাংশ বেশি।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার মতে, এই সমুদ্রপথটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছ। ২০২১ সালে সমুদ্র পার হতে গিয়ে কমপক্ষে এক হাজার ২৫জন মারা গেছে।



এমএইউ/এসএস


 

অন্যান্য প্রতিবেদন