কাজে ব্যস্ত সি-ওয়াচ সংস্থার কর্মীরা | ছবি: ডয়চে ভেলে
কাজে ব্যস্ত সি-ওয়াচ সংস্থার কর্মীরা | ছবি: ডয়চে ভেলে

একটি জার্মান বেসরকারি সংস্থার বিমান থেকে ধরা পড়ল ভূমধ্যসাগরে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের একটি নৌকা। একই সপ্তাহে, এই অঞ্চল থেকে সংস্থাটি উদ্ধার করে মোট ৪১২জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে।

জার্মান বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সি-ওয়াচ 'সি-বার্ড' নামের বিমানের সাহায্যে ভূমধ্যসাগরে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আনাগোনা সম্পর্কে নিকটবর্তী সীমান্তরক্ষী ও জরুরি পরিষেবাদের অবগত করে থাকে। পাশাপাশি, এই অঞ্চলে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে কি না, সেবিষয়েও নজর রাখে তারা।

সম্প্রতি, লিবিয়া থেকে ইটালির লাম্পেদুসার মাঝে থাকা ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে একটি ছোট ডিঙি নৌকাকে দেখতে পায় সি-বার্ড বিমানে থাকা সমাজকর্মীরা। সেই নৌকায় থাকা অভিবাসনপ্রত্যাশীরা জানায় যে তারা ইটালির উদ্দেশ্যে যাত্রা করছে। নৌকায় তেল কম থাকায় সমাজকর্মীরা বারবার এগোতে মানা করতে থাকেন তাদের। তারা অনুরোধ করেন যাতে অভিবাসনপ্রত্যাশীরা ফিরে যায়।

কিন্তু সম্প্রতি অভিবাসনপ্রত্যাশীরা বারবার বলে এসেছেন যে তারা ইউরোপে পৌঁছাতে বদ্ধপরিকর ও প্রয়োজনে সাগরে মৃত্যু বেছে নেবেন কিন্তু লিবিয়ায় ফিরবেন না। মানবাধিকার কর্মীরা এর কারণ হিসাবে বলেন লিবিয়ায় অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সাথে ঘটা দুর্বিষহ আচরণের কথা।

সি-বার্ড বিমানের তেলও এক পর্যায়ে ফুরিয়ে আসায় তারা বাধ্য হন ফিরে আসতে। কিন্তু ডিঙি নৌকাটির অবস্থান সম্পর্কে তারা মাল্টা ও ইটালি কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করেন। কিন্তু কেউ পৌঁছায়নি তাদের সহায়তা দিতে।

সি-বার্ড কর্মী ব্রেটশ্নাইডার বার্তা সংস্থা এপিকে বলেন, "আমরা শুধু আশা করতে পারি যে নৌকায় থাকা মানুষগুলি নিরাপদে ডাঙায় পৌঁছেছে বা কোনো ইউরোপিয়ান উদ্ধার জাহাজ তাদের উদ্ধার করেছে।"

প্রসঙ্গত, গত কয়েক বছর ধরে সাগরে সক্রিয় বেসরকারি সংস্থাগুলি অভিযোগ করে আসছে ইটালিসহ বিভিন্ন ইউরোপিয়ান রাষ্ট্রের কর্তৃপক্ষের দিকে। তাদের মতে, কর্তৃপক্ষ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাথে সমন্বয়ে কাজ করেনা ও তাদের কাজে বাধা দিয়ে থাকে।

তবুও চলছে উদ্ধারের কাজ

সরকারের পক্ষে অসহযোগিতার অভিযোগের মাঝেই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে জার্মান সংস্থা সি-ওয়াচ। চলতি সপ্তাহে ভূমধ্যসাগর থেকে তারা মোট ৪১২জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে, যাদের মধ্যে ছিল বহু নারী ও শিশু।

সোমবারে সংস্থাটি টুইট করে জানায় যে তিনটি নৌকা থেকে বেশ কয়েকজন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করে তারা। এরপর বিপন্ন অবস্থায় একটি ভেঙে যাওয়া কাঠের নৌকা থেকে আরো কয়েকজনকে উদ্ধার করা হয়।

এদের মধ্যে বেশিরভাগের অবস্থাই ছিল নাজুক। ফলে জরুরি চিকিৎসা দেওয়া হয় তাদের।

সি-ওয়াচ জানাচ্ছে যে এই সব অভিবাসনপ্রত্যাশীরা টিউনিশিয়া ও লিবিয়া থেকেই ইউরোপগামী নৌকায় উঠেছিলেন। বার্তা সংস্থা আনসা জানিয়েছে, সোমবারে ইটালির লাম্পেদুসায় এসে পৌঁছেছেন মোট ২২০জন।

এসএস/কেএম (এপি, ডিপিএ, আনসা)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন