(ফাইল ছবি) ব্রিটিশ উপকূলে অভিবাসন প্রত্যাশীদের নৌকা। ছবিঃ রয়টার্স
(ফাইল ছবি) ব্রিটিশ উপকূলে অভিবাসন প্রত্যাশীদের নৌকা। ছবিঃ রয়টার্স

শনিবার এবং সোমবারের মধ্যে মোট ১২৮৮ অভিবাসনপ্রত্যাশী যুক্তরাজ্যে পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে অস্থায়ী নৌকায় চড়ে ফরাসি উপকূল ছেড়ে গেছে। তাদের মধ্যে প্রায় ৮০৬ জন ব্রিটিশ উপকূলে পৌঁছতে সক্ষম হন এবং ৪৮২ জনকে চ্যানেল থেকে উদ্ধার করে ফ্রান্সে ফিরিয়ে আনে ফরাসি নৌবাহিনী।

ফ্রান্স এবং যুক্তরাজ্যের মধ্যকার অভিবাসনপ্রত্যাশীদের চ্যানেল পারাপারের সংখ্যা ধীর গতি করার সর্বাত্মক চেষ্টা সত্ত্বেও, ফরাসি উপকূল থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের যাত্রার পরিসংখ্যান এখনও কমছে না।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসির সাংবাদিক সাইমন জোন্সের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মাত্র তিন দিনে ১২৮৮ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে সমুদ্র থেকে উদ্ধার করেছে ব্রিটিশ ও ফরাসি বাহিনী।


শনিবার ১৬ অক্টোবর থেকে সোমবার ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত, ২৩টি পৃথক অভিযানে সর্বমোট ৮০৬ জন শরণার্থীকে ব্রিটিশ উপকূল থেকে উদ্ধার করা হয়। আলাদাভাবে দৈনিক হিসেবে উল্লেখ করলে, ব্রিটিশ বর্ডার ফোর্স শনিবার ৪১০ জন, রবিবার ১০২ জন এবং সোমবার ২৯৪ জন ব্যক্তিকে উদ্ধার করে।

ইংলিশ চ্যানেলের অপর প্রান্তে ফরাসি কর্তৃপক্ষ, তাদের উপকূলে ১৭ টি অভিযানে ৪৮২ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আটক করেছে। যেটি শনিবার ৯৪ জন, রবিবার ৯০ এবং সোমবার এক দিনেই ২৯৮ জন। 

প্রেফেকচুর ম্যারিটাইম দ্যু নর্দ একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, উদ্ধারকৃত সবাইকে দেশটির উত্তরের বিভিন্ন বন্দর থেকে ফরাসি সীমান্ত পুলিশ (পিএএফ) এবং ডিপার্টমেন্টাল ফায়ার অ্যান্ড রেসকিউ অপারেশনাল সেন্টার (কোডিস) সার্ভিসের আওতায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। 


প্যারিস এবং লন্ডনের মধ্যে উত্তেজনা

চ্যানেলে অভিবাসন সংকট নিয়ে ফ্রান্স এবং যুক্তরাজ্যের মধ্যে উত্তেজনার প্রধান কারণ । ব্রিটিশ সরকার অভিবাসী নৌকাগুলিকে ইংরেজ উপকূলে পৌঁছাতে বাধা দেওয়ার জন্য ফরাসি সরকার প্রয়োজনীয় সমস্ত উপায় প্রয়োগ না করার অভিযোগ করে আসছে। আবারো অভিবাসী আগমন বাড়তে থাকলে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল সেপ্টেম্বরে হুমকি দিয়েছিলেন, যদি আশানুরূপ "ফলাফল" না আসে তবে ফরাসি কর্তৃপক্ষকে তারা প্রতিশ্রুত অর্থ প্রদান করবেন না।

এদিকে অক্টোবরে উত্তর ফ্রান্স সফরের সময় ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরা দারমানা সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছিলেন, অবৈধ অভিবাসীদের প্রবেশের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাহায্যের অংশ হিসেবে প্রতিশ্রুতি দেওয়া ৬২,৭ মিলিয়ন ইউরোর "একটি ইউরোও দেওয়া হয়নি"। তিনি "ব্রিটিশদের তাদের প্রতিশ্রুতি রাখতে আহবান জানিয়েছিলেন, যেহেতু ফ্রান্স তাদের জন্য সীমান্তে কাজ করে যাচ্ছে"। 

যদিও এই অর্থের একটি অংশ "আগামী কয়েক সপ্তাহের" মধ্যে ফ্রান্সকে প্রদান করা হবে এবং প্রশাসনিক জটিলতার জন্য দেরী হচ্ছে বলে জানান ব্রিটিশ পররাষ্ট্র সচিব ডেমিয়েন হিন্দস।

একই সময়ে সমুদ্রে ফরাসি উপকূলের নিকটে অভিবাসনপ্রত্যাশী ঠেকাতে জেট স্কি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছেন প্রীতি প্যাটেল। আন্তর্জাতিক সমুদ্র আইন অনুযায়ী, সীমান্ত বাহিনীর কর্মকর্তাদের "সমুদ্রে বিপদগ্রস্ত ব্যক্তিকে" উদ্ধার করতে হবে এবং ব্যর্থতার জন্য দুই বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে।


এমএইউ/এসএস





 

অন্যান্য প্রতিবেদন