স্প্যানিশ ছিটমহল সেউটায় একজন অভিভাবকহীন বিদেশি নাবালক। ছবিঃ রয়টার্স
স্প্যানিশ ছিটমহল সেউটায় একজন অভিভাবকহীন বিদেশি নাবালক। ছবিঃ রয়টার্স

স্পেনে আগত অভিভাবকহীন অপ্রাপ্তবয়স্কদের প্রক্রিয়াকরণের সময় কমানো সহ বিভিন্ন সুবিধা দিতে মঙ্গলবার নতুন একটি আইন গৃহীত হয়েছে। এই আইনের ফলে এখন থেকে স্পেনে আসা অপ্রাপ্তবয়স্কদের বিশেষ কাজের অনুমতি, বৈধ বসবাসের অনুমতি সহ বিভিন্ন প্রশাসনিক পদ্ধতি খুব সহজে আবেদন করা যাবে। অ্যাসোসিয়েশন এবং ডিফেন্ডার অফ রাইটস নতুন আইটিকে স্বাগত জানিয়ে বলেছে, নতুন ব্যবস্থায় প্রায় ৭,০০০ অভিবাসী তরুণ ও কিশোর উপকৃত হবে।

মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর, স্প্যানিশ মন্ত্রী পরিষদ অভিবাসন সংক্রান্ত আইন সংশোধন করে নতুন একটি ডিক্রির অনুমোদন করেছে। এটি একটি নতুন আইন যার সাহায্যে স্পেনে আসা অপ্রাপ্তবয়স্ক এবং তরুণ অভিবাসীদের বসবাসের অনুমতি পেতে বেশ সহজ হয়ে উঠবে।

অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী জোসে লুইস এসক্রিভার এর পরিসংখ্যান অনুসারে, অভিবাসন মন্ত্রনালয়ের পরিচালিত এই ব্যবস্থায় প্রায় ৭,000 অভিবাসী তরুণ উপকৃত হবে।

স্পেন সরকারের মুখপাত্র ইসাবেল রদ্রিগেজ বলেছেন, "এর লক্ষ্য হল প্রশাসনিক পদ্ধতিকে সহজ করা, সরকারি কাজে লাল ফিতার দৌরাত্ম্য কমানো, কোন প্রকার নথি ও প্রমান ছাড়াই নাবালকদের প্রাপ্তবয়স্ক বয়সে পৌঁছানো থেকে বিরত রাখা।”

এভাবে সরকার শ্রমবাজারে তরুণ ও কিশোর অভিবাসীদের অন্তর্ভুক্ত করার লক্ষ্যে, সম্পূর্ণ সরলীকরণের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ, অবস্থান সংহতকরণে এবং স্বনির্ভর করার মাধ্যমে সরকারি অর্থের অপচয় রোধ করার পাশাপাশি অভিবাসীদের মাথা থেকে প্রশাসনিক বোঝা দূর করার উদ্যোগ নিয়েছে।

অভিবাসন মন্ত্রনালয়ের তথ্য অনুসারে, “আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে ২০১৯ সালে স্পেনে ১৭ বছর বয়সে নিবন্ধিত হওয়া ৬৭১৬ জন অভিভাবকহীন বিদেশি নাবালকদের মধ্যে মাত্র ১০% প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরে চাকুরি খুঁজে পেতে সক্ষম হয়েছিল।”

স্প্যানিশ এনজিওগুলি নতুন এই আইনকে স্পেনে বসবাসকারী তরুণ অভিবাসীদের জন্য "একটি ঐতিহাসিক মাইলফলক" বলে অভিহিত করেছে। অধিকার সংগঠনগুলিও এই পদক্ষেপে "সন্তুষ্টি" প্রকাশ করেছে।

সোশ্যালিস্ট পার্টি থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ফ্রান্সিসকো ফার্নান্দেজ মারুগান বলেছেন, "আমি আশা করি, এখন থেকে সরকারি দায়িত্বে থাকা কিশোর ও তরুণ ছেলে-মেয়েরা ১৮ বছর বয়সের পরে পেশাদার জীবনে ঢুকতে প্রশিক্ষণ নিতে সক্ষম হবে। অন্যান্য সাধারন তরুণদের মতো একই অধিকার পাবে এই আইন বাধ্য করবে। এটি সমাজে কিশোর ও তরুণদের মূল স্রোত থেকে ঝড়ে পড়া রোধ করতে সাহায্য করবে।"

নতুন আইনের ফলে অপ্রাপ্তবয়স্ক অভিবাসীরা কি কি সুবিধা পাবে সেটি ইনফোমাইগ্রেন্টসের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

প্রক্রিয়াকরণের সময় হ্রাস

একজন অভিভাবকহীন নাবালক স্পেনে আসলে সর্বপ্রথম তার দায়িত্ব নেয় অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য নির্ধারিত অভ্যর্থনা কেন্দ্রের স্বায়ত্তশাসিত দপ্তর। স্পেনে বসবাসের জন্য আবাসনের অনুমতি বা রেসিডেন্ট পারমিটের জন্য আবেদন করতে অভ্যর্থনা কেন্দ্রের প্রধানকে অবশ্যই ইমিগ্রেশন অফিসে একটি আবেদন জমা দিতে হয়।

তবে আগে ইমিগ্রেশন এই আবেদন প্রক্রিয়ার সিদ্ধান্ত দিতে প্রায় নয় মাস সময় নিত। অভিবাসন মন্ত্রণালয় যেটিকে "অত্যধিক দীর্ঘ এবং ভিত্তিহীন বলে বিবেচিত করেছে। কারণ এই দীর্ঘ সময়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় অনেক তরুনের বয়স ১৮ হয়ে গেলে তারা স্পেনে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ অভিবাসী হওয়ার ঝুঁকি তৈরী হয়।

নতুন আইন বসবাসের অনুমতির আবেদনের প্রক্রিয়ার সময় কমিয়ে তিন মাসের মধ্যে বৈধতা আবেদনের সিদ্ধান্ত দেয়া হবে। মন্ত্রণালয় জানায়, "এই তিন মাস শেষ হলে, অভিবাসন পরিষেবাগুলি স্বয়ংক্রিয়ভাবে এসব তরুণদের নথিভুক্ত করবে।"

বসবাসের অনুমতি নবায়ন সহজতর

অপ্রাপ্তবয়স্কদের প্রতি বছর তাদের বসবাসের অনুমতি নবায়ন করতে হতো। অভিবাসন মন্ত্রনালয়ের মতে, আগের নিয়মের ফলে অভিবাসন অফিসগুলো প্রচুর ফাইলে পূর্ণ ছিল। এটি ছিল সম্পূর্ণ অপ্রয়োজনীয় ছিল যেহেতু ১৮ বছরের আগে তারা নাবালক সুতরাং বারবার আবাসনের অনুমতি নবায়ন ভিত্তিহীন বলে প্রমাণিত হয়েছে। ৷

এখন থেকে প্রত্যেক আবাসন অনুমতি বা রেসিডেন্স পারমিট দুই বছরের জন্য বৈধ থাকবে। 

উপরন্তু, কোন অভিভাবকহীন নাবালককে অপ্রাপ্তবয়স্ক শনাক্তকরণের জন্য আর তাদের দেশের দূতাবাস থেকে কোন নথির সত্যায়িত প্রতিলিপি উপস্থাপন করতে হবে না। এই প্রক্রিয়ার ফলে বিগত দিনে হাজার হাজার বসবাসের অনুমোদনের ফাইল অবরুদ্ধ ছিল। এখন থেকে স্পেনের শুধুমাত্র শিশু সুরক্ষা পরিষেবা দপ্তর থেকে একটি সাধারণ প্রতিবেদনের প্রয়োজন হবে ৷

১৬ বছর বা তার বেশি বয়সী তরুণদের বৈধ কাজের অনুমতি

নতুন আইনের আগে, ১৬ বছরের বেশি বয়সী একজন নাবালক একটি রেসিডেন্স পারমিট পেত কিন্তু সেটি দিয়ে কাজ করা যেত না। এটিকে একটি বৈষম্যমূলক ব্যবস্থা বলা হয়েছে কারণ স্প্যানিশ কিশোর এবং অভিভাবকসহ আসা বিদেশি নাবালকদের তাদের অভিভাকের তত্ত্বাবধানে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়ে। (বিশেষ করে গ্রীষ্মের ছুটির চাকুরি এবং ইন্টার্নশিপের জন্য)।

যার ফলে, অনেক কোম্পানি এইভাবে একটি প্রশিক্ষণ কোর্সের অংশ হিসাবে একটি কোম্পানির ইন্টার্নশিপের পরে অভিভাবকহীন অপ্রাপ্তবয়স্কদের নিয়োগ করতে অক্ষম হয়েছে এবং হাজার হাজার তরুণ-তরুণী শ্রমবাজারে একীভূত হতে পারেনি। এক পর্যায়ে ১৮ বছর বয়সে এসে তারা অবৈধ হয়ে পড়ে।

অভিভাবকহীন অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য জারি করা নতুন আইনে আবাসনের অনুমতিগুলিতে এখন থেকে ১৬ বছর বয়স থেকে কাজ করার অনুমতি সংযুক্ত থাকবে। এক্ষেত্রে শর্ত থাকবে যে কর্মসংস্থানটি যেন পরবর্তীতে তরুণদের কর্মক্ষেত্রে স্বনির্ভর করতে মন্ত্রণালয় প্রদত্ত "একীকরণের পথ" নির্দেশনার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়।



এমএইউ/এসএস


 

অন্যান্য প্রতিবেদন