টিউনিশিয়ার সীমান্তরক্ষীরা সাগরে কর্মরত | ছবি: ডিপিএ
টিউনিশিয়ার সীমান্তরক্ষীরা সাগরে কর্মরত | ছবি: ডিপিএ

টিউনিশিয়া কর্তৃপক্ষের তৎপরতায় ইটালির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েও পৌঁছাতে পারলেন না দুইশ অভিবাসনপ্রত্যাশী। সাগরপথে তাদের থামিয়ে দেয় টিউনিশিয়ার পুলিশ।

নয়টি অভিযান চালিয়ে টিউনিশিয়ার তট থেকে ইটালির উদ্দেশ্যে যাত্রা করা ২২৩জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে থামালো টিউনিশিয়ান ন্যাশনাল গার্ড।

রোববার টিউনিশিয়া কর্তৃপক্ষের তরফে ন্যাশনাল গার্ডের মুখপাত্র হুসেম এদিনে জেবাবলি বলেন, "অবৈধ ও অনিয়মিত অভিবাসন ঠেকাতে আমরা সক্রিয় রয়েছি। আমাদের যে দলগুলি দেশের উত্তরাঞ্চলে, দক্ষিণে ও মধ্যবর্তী অঞ্চলে সক্রিয় রয়েছে, তারা সাগরে মোট নয়টি অভিযান চালিয়েছে শনিবার রাতে ও রোববার দিবাগত রাত্রিজুড়ে।"

ন্যাশনাল গার্ডের মতে, আটক হওয়া ২২৩জন অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সকলেই আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের নাগরিক, যাদের মধ্যে রয়েছেন ১১১জন টিউনিশিয়ানও।

এর আগে, গত মাসে এমন ছয়টি যাত্রাকে ঠেকাতে সক্ষম হয় ন্যাশনাল গার্ড। এইসব অভিযান থেকে আটক হয় ১২৫জন অভিবাসনপ্রত্যাশী, যাদের মধ্যে ১১২জনই ছিলেন সাব-সাহারান অঞ্চলের মানুষ।

টিউনিশিয়ার সাগর তটে অক্টোবর মাসে একটি নৌকাডুবির ঘটনায় চারজন নিহত হন, নিখোঁজ ছিলেন ১৯জন। এভাবে বহু অভিবাসনপ্রত্যাশী বিপজ্জনক এই পথে প্রাণ হারান।

এখন পর্যন্ত, ২০২১ সালে সাগর পথে ইটালিতে পৌঁছেছেন ৫৮ হাজার ৮০০জন অভিবাসনপ্রত্যাশী, জানাচ্ছে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর। ইটালি, স্পেন ও গ্রিসে সাগরপথে প্রবেশ করতে গিয়ে ইতিমধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত এক হাজার তিনশজন অভিবাসনপ্রত্যাশী।

ঝুঁকিপূর্ণ এই ইউরোপগামী সাগর রুটের গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র টিউনিশিয়া। দেশটির পূর্ব তট থেকে ইটালিয়ান দ্বীপ লাম্পেদুসার দূরত্ব মাত্র ১৪০ কিলোমিটার।

২০২১ সালের প্রথম নয় মাসেই, টিউনিশিয়ার সাগর সীমান্তরক্ষীরা মোট ১৯ হাজার পাঁচশজন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে ভূমধ্যসাগর পেরিয়ে ইটালিতে প্রবেশ করা থেকে বিরত রেখেছে বলে জানাচ্ছে মানবাধিকার সংস্থা এফটিডিইএস।

সংস্থাটির মতে, এই ধারা আরো বাড়তে শুরু করে জুনমাসে রোম ও টিউনিসের মধ্যে সম্পর্ক আরো গভীর হওয়ার ফলে। দুই দেশ মিলে অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে তাদের তৎপরতা বাড়ালে এই পথে আটক হওয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সংখ্যা বাড়তে থাকে।

এফটিডিইএসের পরিসংখ্যান বলছে, ২০১১ সাল থেকে ২০২০ পর্যন্ত এই পথে রওয়ানা দিতে গিয়ে কর্তৃপক্ষের হাতে আটক হয়েছেন মোট ৪২ হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী।

এসএস/আরআর (এএফপি)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন