প্রতীকী ছবি৷ সি. ওহডে/ব্ণিকভিংকেল/এমসিফটো/পিকচার অ্যালায়েন্স
প্রতীকী ছবি৷ সি. ওহডে/ব্ণিকভিংকেল/এমসিফটো/পিকচার অ্যালায়েন্স

আশ্রয়ের আবেদন জমা পড়ার ক্ষেত্রে ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে অবস্থান করছে জার্মানি৷ পশ্চিম ইউরোপের এই দেশটিতে জোটভুক্ত অন্যান্য দেশের তুলনায় আশ্রয় আবেদন মঞ্জুর হওয়ার সংখ্যাও বেশি৷

২০২১ সালের প্রথম নয় মাসে জার্মানিতে আশ্রয় আবেদনের সংখ্যা ২০২০ সালের একই সময়ের তুলনায়ের তুলনায় অন্তত এক তৃতীয়াংশ বেড়েছে৷ জার্মানির ফুংকে মিডিয়া গ্রুপের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইউরোপে আশ্রয়প্রার্থীদের প্রথম পছন্দ জার্মানি৷  

ইউরোস্ট্যাটের তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে ফুংকে মিডিয়া গ্রুপ জানায়, ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশটিতে এক লাখ দুইশ ৪০টি আশ্রয় আবেদন জমা পড়েছে৷ আশ্রয় আবেদনের এই সংখ্যা ২০২০ সালের তুলনায় এ তৃতীয়াংশ বেশি৷   

ইউরোপের নেতৃত্বে জার্মানি

পরিসংখ্যান বলছে, এই সময়ের ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিভিন্ন দেশে করা আশ্রয় আবেদনের ২৮ দশমিক চার ভাগই জার্মানিতে জমা পড়েছে৷ ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর সময়ে এ সংখ্যা ছিল ২৪ দশমিক তিন ভাগ৷  

আশ্রয় আবেদন জমা পড়ার দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ফ্রান্স৷ দেশটিতে মোট ৭৩ হাজার দুইশ ২৫টি আবেদন জমা পড়েছে৷ তৃতীয় ও চতুর্থ অবস্থানে আছে স্পেন এবং ইটালি৷ উল্লেখিত সময়ে এ দুটি দেশে যথাক্রমে ৩৯ হাজার সাতশ ৫৫ এবং ২৮ হাজার ছয়শ ৪৫টি আবেদন জমা পড়েছে৷ 

তবে সবচেয়ে কম আবেদন জমা পড়েছে পূর্ব ইউরোপের দেশ হাঙ্গেরিতে৷ দেশটিতে উল্লেখিত সময়ে মোট ৩০টি আশ্রয় আবেদন জমা পড়েছে৷ উল্লেখ্য, হাঙ্গেরিতে এই মুহুর্তে ভিক্টর ওরবানের নেতৃত্বে একটি ডানপন্থি দল ক্ষমতায়৷ এ দলটি অভিবাসনের তীব্র বিরোধী৷   

ইউরোপে আশ্রয় আবেদন বাড়ছে

২০২১ সালে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে তার আগের বছরের অর্থাৎ ২০২০ সালের তুলনায় অনেক বেশি আশ্রয় আবেদন জমা পড়েছে৷ ২০২১ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোতে মোট ৩ লাখ ৫৫ হাজার নয়শ ৫৫টি আবেদন জমা পড়েছে, যা ২০২০ সালের তুলনায় শতকরা ১৫ ভাগ বেশি৷ 

ফুংকে মিডিয়া গ্রুপের প্রতিবেদন বলছে, ইউরোপে আবেদনকারীদের এক তৃতিয়াংশই সিরিয়া ও আফগানিস্তানের নাগরিক৷ 

সবচেয়ে বেশি আবেদন গৃহীত হয় জার্মানিতে 

ইউরোস্ট্যাটের পরিসংখ্যান বলছে, ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে জার্মানিতে আশ্রয় আবেদন সবচেয়ে বেশি মঞ্জুর হয়৷ গত জুলাই, আগস্ট ও সেপ্টেম্বর এই তিন মাসে দেশটিতে করা আশ্রয় আবেদনের অর্ধেকেরও বেশি মঞ্জুর হয়েছে৷ এই সময়ে মোট ২৯ হাজার নয় ৭০টি আশ্রয় আবেদন জমা পড়েছে৷ এর মধ্যে ১৬ হাজার দুইশটি আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে৷ 

একই সময়ে ফ্রান্সে করা আশ্রয় আবেদনের এক তৃতীয়াংশ মঞ্জুর করা হয়েছে৷ দেশটিতে এই সময়ে মোট ৩৩ হাজার তিনশ ২৫টি আবেদনের নয় হাজার চারশ ২৫টি মঞ্জুর করা হয়৷ 

আরআর/কেএম (এএফপি, ইপিডি, কেএনএ)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন