(ফাইল ছবি) মরক্কোর উত্তরাঞ্চলের একটি উপকূল৷ ছবি: এপি
(ফাইল ছবি) মরক্কোর উত্তরাঞ্চলের একটি উপকূল৷ ছবি: এপি

মরক্কোর দক্ষিণাঞ্চলে তারফায়া উপকূলে নৌকাডুবির ঘটনায় তিন নবজাতকসহ ৪৩ অভিবাসী প্রাণ হারিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ স্প্যানিশ সংস্থা কামিনান্দো ফ্রন্টেরাস সোমবার এই তথ্য জানিয়েছে৷

দুর্ঘটনাকবলিত নৌকাটির দশ অভিবাসীকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে বলে সংস্থাটি এএফপিকে জানিয়েছে৷ তাদেরকে মরক্কোতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের প্রশাসনের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা ডিপিএ৷ টিক্সেমা সান্তানা নামে এক কর্মকর্তা জানান, তারফায়া থেকে সমুদ্রে প্রবেশের কিছুক্ষণ পরই নৌকাটি দুর্ঘটনায় পড়ে৷  

কামিনান্দো ফ্রন্টেরাস বরাতে এএফপি জানিয়েছে, উদ্ধারকৃতরা রোববার সকালের দিকে প্রথম দুর্ঘটনার বার্তা পাঠয়েছিলেন৷ প্রায় দুই ঘণ্টার মতো তারা যোগাযোগ বজায় রাখতে সক্ষম হয়৷ প্রথম সংকেত পাঠানোর ১১ ঘণ্টা পরে মরক্কো কর্তৃপক্ষ নৌকাটির অবস্থান শনাক্ত করে জীবিতদের উদ্ধার করে বলে উল্লেখ করেছে আরেক সাহায্যকারী সংস্থা অ্যালার্ম ফোন৷

উদ্ধারকৃতদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ৪৩ জনের প্রাণহানির আশঙ্কা করছে কামিনান্দো ফ্রন্টেরাস৷ এরমধ্যে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করতে সমর্থ্য হয় তারা। তারফায়া থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে স্পেনের ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের পথে যাত্রা করেছিল অভিবাসী দলটি৷

উন্নত জীবনের আশায় উত্তর আফ্রিকা থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীরা এই পথে প্রায়ই ঝুঁকিপূর্ণ উপায়ে সমুদ্র পাড়ি দিয়ে ইউরোপে পৌঁছানোর চেষ্টা করেন৷ কামিনান্দো ফ্রন্টেরাসের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর এই প্রচেষ্টায় চার হাজারের বেশি অভিবাসী প্রাণ হারিয়েছেন বা নিখোঁজ হয়েছেন৷ ২০২০ সালের চেয়ে এই সংখ্যা দুইগুণ বেশি৷ এর মধ্যে বেশিরভাগেরই মরদেহের সন্ধান পাওয়া যায়নি৷

স্পেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালে তিন লাখ ৭৩ হাজারের বেশি অভিবাসী সমুদ্র পাড়ি দিয়ে দেশটিতে পৌঁছেছেন৷

এফএস/এআই (এএফপি, ডিপিএ)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন