ফ্রান্স-স্পেন সীমান্তে অবস্থিত বিদাসোয়া নদী। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস
ফ্রান্স-স্পেন সীমান্তে অবস্থিত বিদাসোয়া নদী। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস

স্পেন সীমান্তে অবস্থিত ফ্রান্সের বাস্ক প্রদেশের বিদাসোয়া নদীতে হারিয়ে গেছেন এক অভিবাসী। তাকে খুঁজতে বুধবার সকাল থেকে যৌথ উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে ফরাসি ও স্পেন কর্তৃপক্ষ। তবে এখনও নিখোঁজ অভিবাসীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

সোমবার থেকে ফ্রাঙ্কো-স্প্যানিশ সীমান্তের বিদাসোয়া নদীর মধ্যবর্তী এলাকা এন্ডারলাটসা সেক্টর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন এক অভিবাসী। হারিয়ে যাওয়ার আগে নদীর পাহাড়ি অংশে অন্য দুজন অভিবাসীর সাথে হাঁটছিলেন ঐ ব্যক্তি। 

স্থানীয় "ডিয়ারিও ভাস্কো" সংবাদপত্রের তথ্য অনুসারে, ২৭ এপ্রিল বুধবার ভোর থেকে নিখোঁজ ব্যক্তিকে খুঁজতে অভিযান শুরু করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। 

স্থানীয় ফরাসি বাস্ক প্রদেশের একজন কারিগরি কর্মকর্তা ও স্পেনের এরতজাইন্টজা রেসকিউ সার্ভিসের নেতৃত্বে স্থানীয় পুলিশ ও রেডক্রসের একটি দল উদ্ধার অভিযানে অংশগ্রহণ করে। 

বিদাসোয়া নদীর প্রবেশ পথ থেকে শুরু করে ফিজান্টস দ্বীপ পর্যন্ত উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। 

স্পেন-ফ্রান্স সীমান্তে বাড়ছে অভিবাসীদের প্রাণহানির তালিকা। গত ৩০ মার্চ ২৪ বছর বয়সি সেনেগালীয় অভিবাসী ইব্রাহিম দিয়ালোর প্রাণহীন দেহ উদ্ধার করে স্পেন সীমান্ত পুলিশ। 

নিহত যুবক ১২ মার্চ সন্ধায় অন্যান্য অভিবাসীদের সীমান্তের বিরিয়াতু অঞ্চলের কাছে বিদাসোয়া নদী পার হয়ে ফ্রান্সে প্রবেশের চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু তার প্রচেষ্টা সফল হয়নি। অভিবাসী দলটিতে থাকা মাত্র দু'জন ব্যক্তি নদী পার হতে সক্ষম হয়েছিলেন। 

একই অঞ্চলে নদীপথ ছাড়াও রাতের বেলা ট্রেন লাইন ধরে স্পেন থেকে ফ্রান্সে আসতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় নিয়মিত প্রান হারান অনেক অভিবাসী। দক্ষিণ ফ্রান্সে পুলিশের ব্যাপক কড়াকড়ি অভিবাসীদের ঝুকিপূর্ণ পথ বেছে নিতে বাধ্য করে বলে জানায় এনজিওগুলো। 


এমএইউ/এফএস  (সুদ-ওয়েস্ট)


 

অন্যান্য প্রতিবেদন