পণ্যবাহী জাহাজ থেকে অভিবাসীদের উদ্ধার করা হয়৷ পরে তাদের সি-আই 4-এ স্থানান্তরিত করা হয়৷ ছবি: সি-আই টুইটার থেকে নেওয়া৷ @seaeyeorg
পণ্যবাহী জাহাজ থেকে অভিবাসীদের উদ্ধার করা হয়৷ পরে তাদের সি-আই 4-এ স্থানান্তরিত করা হয়৷ ছবি: সি-আই টুইটার থেকে নেওয়া৷ @seaeyeorg

রোববার, ৮ মে সন্ধ্যায় ভূমধ্যসাগরে মানবিক উদ্ধার জাহাজ সি-ওয়াচ-৪ ৮৮ জন অভিবাসীকে সমুদ্রের প্রতিকূল পরিস্থিতি থেকে উদ্ধার করে৷ মাল্টা উপকূলে অন্য একটি পণ্যবাহী জাহাজ  থেকে আরো ৩৪ জনকে উদ্ধার করে সি-আই৷ এসব অভিবাসীরা মাঝ সমুদ্রে টানা চার রাত ভেসেছিলেন বলে জানা গেছে৷

জার্মান সংবাদ সংস্থা ডিপিএ জানিয়েছে, সপ্তাহের শেষে ১২২ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়েছে৷ সি-ওয়াচ ফোর পরে একটি টুইটে জানায়, রাতে দ্বিতীয় দফার উদ্ধারকাজ চালিয়েছেন তারা৷ সবমিলিয়ে সি-ওয়াচ ফোরের মাধ্যমে উদ্ধার হওয়া অভিবাসীর সংখ্যাটা দাঁড়ায় ১৪৫-এ৷

কীভাবে উদ্ধার

দ্য সি ওয়াচ-৪ এখন ইউনাইটেড ফর রেসকিউর সঙ্গে কাজ করছে৷ চলতি বছরের আগস্ট থেকে তারা এই মানবিক উদ্ধার জাহাজের কার্যক্রম এনজিও এসওএস হিউম্যানিটির কাছে হস্তান্তর করবে৷

৬ মে অ্যালার্ম ফোন সংস্থার তরফে বেশ কিছু ছবিসহ টুইটে বলা হয়, আন্তর্জাতিক জলসীমায় লিবিয়ার বেনগাজি শহরের উপকূলের উত্তরে একটি অভিবাসী নৌকা বিপদে পড়েছে৷ প্রথম দিকে বার্লিন এক্সপ্রেস নামে একটি জার্মান পণ্যবাহী জাহাজ প্রথমে সাহায্য করতে এগিয়ে এলেও তীব্র স্রোতের কারণে উদ্ধারকাজ করা যায়নি৷ অভিবাসী নৌকার পাশেই ছিলেন বার্লিন এক্সপ্রেসের কর্মীরা৷ ছোট ছোট নৌকার মাধ্যমে খাবার এবং জলও সরবরাহ করেন তারা৷


বার্লিন এক্সপ্রেসের ক্যাপ্টেন সি-আইয়ের কর্মীদের সঙ্গে টানা যোগাযোগ রেখেছিলেন৷ শুক্রবার রাতে সি-আইয়ের জাহাজটি ত্রিপোলির পূর্বে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছিল, বার্লিন এক্সপ্রেসের থেকে খবর পেয়ে তারা রুট বদল করেন৷

দ্বিতীয় পণ্যবাহী জাহাজ

একাধিক পণ্যবাহী জাহাজ বার্লিন এক্সপ্রেসের কাছে এসে পৌঁছায়৷ হামবুর্গের শিপিং সংস্থা সিপিও-র পণ্যবাহী জাহাজ বিএসজি বাহামা রবিবার সন্ধ্যায় ৩৪ জনকে উদ্ধার করে৷ সংস্থার মুখপাত্র ওর্টউইন ম্যুর জানান, এদের মধ্যে দুজন অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন৷ বাকিদের কোনো শারীরিক সমস্যা ছিল না৷ বিএসজি বাহামা উদ্ধার কাজ শেষ করার পর বার্লিন এক্সপ্রেস নিজের গন্তব্যে রওনা দেয়৷ বার্লিন এক্সপ্রেসের ক্যাপ্টেন এবং সি-আইয়ের ক্যাপ্টেনের প্রশংসা করেছে একাধিক সংস্থা৷ পরস্পরের মধ্যে টানা যোগাযোগ রেখেছিল দুটি জাহাজ৷ তাই উদ্ধারকাজ অনেকটা সহজ হয়েছে৷


সি-আইয়ের মেডিকেল টিম পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে

জার্মানিতে সি-আইয়ের প্রধান গর্ডেন ইসলার বলেন, ‘‘আবারো মাল্টা দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করল৷ অভিবাসীদের উদ্ধারকাজেও সাহায্য করেনি তারা৷ এর ফলে ব্রেমেনের পরিচালনা কেন্দ্র এবং উদ্ধারকারীরা ভূমধ্যসাগরে বিপদে পড়া অভিবাসীদের পাশে দাঁড়িয়েছিল৷ ’’ চিকিৎসকদের মানবিক সংস্থা ‘ডক্টর্স উইদাউট বর্ডার্স’ (এমএসএফ) এই ঘটনা সম্পর্কে একাধিক পোস্ট করে৷ অভিবাসীদের উদ্ধার করার আগে তারা একটি পোস্টে মনে করিয়ে দিয়েছিল, ‘অভিবাসী নৌকাগুলিকে উদ্ধার করা আইনি বাধ্যবাধকতার মধ্যে পড়ে৷’ অভিবাসীদের ডুবে যাওয়ার যে সম্ভাবনা ছিল, তা কিছুতেই মেনে নেওয়া য৷য়া না বলে টুইটারে উল্লেখ করেছে তারা৷


ইটালিতে পৌঁছানো, ১০৮ জন নিরাপদ, দুইজনের মৃত্যু

সংবাদসংস্থা এপি জানিয়েছে, শুক্রবার ইটালির উপকূলরক্ষী বাহিনী ১০০ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে এবং দুজনের দেহ উদ্ধার করেছে৷ ইটালির দক্ষিণে একটি পালতোলা অভিবাসী নৌকা ভেসে যাওয়ার পর তাদের উদ্ধার করা হয়৷

আরকেসি/এমএইউ

 

অন্যান্য প্রতিবেদন