২০২০ সালের জুলাই থেকে ভেন্টিমিগ্লিয়াতে অভিবাসীদের জন্য কোন আশ্রয় কাঠামো নেই। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস
২০২০ সালের জুলাই থেকে ভেন্টিমিগ্লিয়াতে অভিবাসীদের জন্য কোন আশ্রয় কাঠামো নেই। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস

ইটালি-ফ্রান্স সীমান্তের ইটালি অংশের ভেন্টিমিগ্লিয়া অঞ্চলের কর্তৃপক্ষ নতুন আশ্রয়প্রার্থীদের জন্য একটি শনাক্তকরণ কেন্দ্র চালুর ঘোষণা দিয়েছে। পাশাপাশি অঞ্চলটিতে গ্রীষ্মের আগেই আরেকটি অস্থায়ী অভ্যর্থনা কাঠামোও চালু হওয়ার কথা রয়েছে।

ফ্রান্স সীমান্তে অবস্থিত ইটালীয় শহর ভেন্টিমিগ্লিয়ার স্থানীয় কর্তৃপক্ষ গত সপ্তাহে ঘোষণা করেছে, এই অঞ্চলে অভিবাসীদের জন্য একটি স্থায়ী কাঠামো শীঘ্রই চালু করা হবে। 

কেন্দ্রটি কবে নাগাদ উদ্বোধন হবে সেটির সঠিক তারিখ জানা না গেলেও কর্তৃপক্ষ ইঙ্গিত দিয়েছে, এটি গ্রীষ্ম শুরুর আগেই চালু করা হবে।

মূলত ইটালি থেকে ফ্রান্সে প্রবেশ করতে চাওয়া বিপুল সংখ্যক অভিবাসীর ঢল সামলাতে এই অঞ্চলে এমন একটি কাঠামো প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। কাঠামোটি ভেন্টিমিগ্লিয়া শহরের উপকণ্ঠে মর্তোলা নামক স্থানে চালু করা হবে।

পড়ুন>> ইটালির ল্যা স্পেৎসিয়ায় ইউক্রেনীয়দের কাজের সুযোগ

ইটালির ইম্পেরিয়া আরমান্দো নানেই প্রিফেকচুরের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদ মাধ্যম সান রেমো নিউজ লিখেছে, “এটি সংশ্লিষ্ট অভিবাসীদের আশ্রয় আবেদনের স্থান নির্ধারণ ও শনাক্তকরণে ব্যবহার করা হবে।”

উল্লেখ্য সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে আটক হওয়া আশ্রয়প্রার্থী ও অভিবাসনপ্রত্যাশীরা কোথায় তাদের আশ্রয় আবেদন জমা দেবেন সেটি নিয়ে প্রায়শই জটিলতা তৈরি হয়। নতুন কেন্দ্রটি এসব আইনি ও প্রশাসনিক জটিলতা কমিয়ে আনবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পাশাপাশি এই অঞ্চলের পূর্ব দিকে পার্ক দে লা রোয়াতে একটি অস্থায়ী অভ্যর্থনা কেন্দ্রও চালু হওয়ার কথা রয়েছে। সেখানে আগে ইটালীয় রেডক্রস পরিচালিত একটি অভ্যর্থনা কাঠামো ছিল, যা ২০২০ সালের জুলাই মাসে বন্ধ হয়ে যায়। কেন্দ্রটিতে আগে ট্রানজিট পয়েন্টে থাকা অভিবাসীদের আশ্রয় দেয়া হতো। 

আরও পড়ুন> ইটালিতে প্রতিদিন গড়ে ৩০ শিশু নিখোঁজ

সাবেক রোয়া ক্যাম্পে আগে অভিবাসীদের অনেক অসুবিধার মধ্যে রাখা হতো বলে অভিযোগ রয়েছে। যদিও সেখানে থাকা আশ্রয়প্রার্থীর সংখ্যা ছিল একেবারেই কম। 

ভেন্টিমিগলিয়ায় ৯০ শতাংশ অভিবাসী অনিয়মিত

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলিতে ভেন্টিমিগ্লিয়াতে দৈনিক প্রায় ৯০ জন আশ্রয়প্রার্থী এসেছেন, যাদের অধিকাংশই পরিবার। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ গ্রীষ্মকালে এই সংখ্যা বৃদ্ধির আশঙ্কা করছে।

স্থানীয় প্রেফেকচুরের অভিবাসন বিষয়ক প্রতিনিধি ফ্রান্সেসকা ফেরান্দিনো বলেন, “আমরা বাস্তব পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়েছি এবং ভেন্টিমিগলিয়াকে অবশ্যই এই পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে। এটি এমন একটি সত্য যা আমরা উপেক্ষা করতে পারি না। এটি মোকাবেলার জন্য তাত্ক্ষণিক পদক্ষেপের পাশাপাশি মাঝারি এবং দীর্ঘমেয়াদী উদ্যোগের প্রয়োজন।"

পড়ুন>>আশ্রয়প্রার্থীদের জন্য ইটালিতে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

এ বিষয়ে ভেন্টিমিগ্লিয়ার মেয়র গায়াতানো স্কুলিনো বলেন, “স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে বাসের জন্য আবেদন করা হয়েছে যাতে করে অনিয়মিত অভিবাসীদের প্রত্যাবাসন কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া যায়। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ভেন্টিমিগলিয়ায় আসা ৯০ শতাংশ অভিবাসী অনিয়মিত অবস্থায় আছে।

ভেন্টিমিগলিয়ায় থাকা বেশিরভাগ আশ্রয়প্রার্থীরা ফ্রান্সের সাথে থাকা সুরক্ষিত সীমান্ত অতিক্রম করার চেষ্টা করতে গিয়ে ট্রেনের ছাদে উঠার মত বিপজ্জনক পথ গ্রহণ করে থাকেন। একবার ব্যর্থ হয়ে ভেন্টিমিগলিয়ায় ফিরে এলে এসব অনিয়মিত অভিবাসীরা আবারও পরবর্তী প্রচেষ্টার অপেক্ষায় থাকেন। কোনো প্রকার সহায়তা ছাড়াই এসব অভিবাসীদের অনেকেই রোয়া নদীর তীরে কিংবা পাশ্ববর্তী সমুদ্র সৈকতের পাশে রাত কাটায়। 


এমএইউ/এআই 


 

অন্যান্য প্রতিবেদন