বাসস্থান না পাওয়ায় এমন পরিস্থিতিতে থাকতে হচ্ছে ষাট জনের বেশি আশ্রয়প্রার্থীকে। ছবি: অ্যাসেম্বলিয়া অ্যান্টিরাৎসিস্টা
বাসস্থান না পাওয়ায় এমন পরিস্থিতিতে থাকতে হচ্ছে ষাট জনের বেশি আশ্রয়প্রার্থীকে। ছবি: অ্যাসেম্বলিয়া অ্যান্টিরাৎসিস্টা

ইটালির উত্তরাঞ্চলের শহর ট্রেন্টোতে ৬০ জনের বেশি আশ্রয়রপ্রার্থী এক মাসেরও বেশি গৃহহীন অবস্থায় আছেন বলে অভিযোগ করেছে একটি বেসরকারি সংস্থা। বিবৃতিতে তারা বলেছে এই অভিবাসী এবং শরণার্থীরা আশ্রয় আবেদনের আইনসঙ্গত সুযোগ ও অন্য সুবিধাগুলোও পাচ্ছে না।

অ্যাসেম্বলিয়া অ্যান্টিরাৎসিস্টা (বর্ণবাদবিরোধী পরিষদ) নামের একটি সংস্থা চলতি সপ্তাহে এক বিবৃতিতে এই অভিযোগ করেছে। এই পরিস্থিতির জন্য তারা অভিবাসী বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি সংস্থাগুলোর নীরবতার সমালোচনাও করেছে।

বিবৃতিতে অ্যাসেম্বলিয়া অ্যান্টিরাৎসিস্টা বলেছে, ষাট জনের বেশি আশ্রয়প্রার্থী আবেদনের সুযোগ না পেয়ে মাসাধিককাল গৃহহীন অবস্থায় রয়েছেন। ইটালির মাটিতে পা রাখার কয়েক দিনের মাথায়ই আশ্রয় আবেদন ও থাকার সুবিধা দেয়ার কথা আইনে পরিস্কার বলা থাকলেও আশ্রয়প্রার্থীরা তা পাচ্ছেন না। এজন্য তাদের র্দীঘদিন অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে।

সংস্থাটি বলছে আশ্রয় আবেদনের প্রক্রিয়ায় যুক্ত হতে অভিবাসী, শরণার্থীদের দুই মাস পর্যন্ত সময় লাগে। 

বিবৃতিতে সংস্থাটি পুলিশ কর্তৃপক্ষ ও এবং সরকারের এই সংক্রান্ত সংস্থার কার্যক্রমকে ‘সম্পূর্ণ অবৈধ” হিসেবে অভিহিত করেছে। তারা বলছে, প্রদেশটিতে এই পরিস্থতি নতুন না হওয়া সত্ত্বেও কেন নিয়মের এমন বরখেলাপ ঘটেই চলছে তা নিয়ে তারা বিষ্মিত।

সংস্থাটি বিবৃতিতে এক যুবকের উদাহরণ তুলে ধরেছে। নিয়মবহির্ভূতভাবে সরকারি কমিশনার তাকে থাকার জায়গা দিতে অস্বীকৃতি জানায়। ছেলেটি কর্তৃপক্ষের ফোন ধরতে না পারায় তাকে পরে আর সুযোগ দেয়নি তারা। ছোটখাট ভুল, দেরি করা আর অভিবাসীদের আইন সম্পর্কে না জানার সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে বিবৃতিতে।

এফএস/এআই

পড়ুন: ইটালির নির্মাণ খাতে অভিবাসীদের চাকরি দিতে নতুন চুক্তি

 

অন্যান্য প্রতিবেদন