২ জুলাই ২০২২ তারিখে ওকিউটিএফ প্রাপ্ত তরুণদের নিয়ে পিকনিকের আয়োজন করে এডুকেশন উইদাউট বর্ডারস নেটওয়ার্ক (আরইএসএফ)। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস
২ জুলাই ২০২২ তারিখে ওকিউটিএফ প্রাপ্ত তরুণদের নিয়ে পিকনিকের আয়োজন করে এডুকেশন উইদাউট বর্ডারস নেটওয়ার্ক (আরইএসএফ)। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস

ফরাসি রাজধানী প্যারিসের অদূরে অবস্থিত উ-দ্য-সেইন বা ৯২ নং ডিপার্টেমেন্টে অনিয়মিত বিদেশি তরুণদের ফরাসি অঞ্চল ত্যাগ করার বাধ্যবাধকতা বা ওকিউটিএফ নামক আইনি নোটিশ প্রদানের হার বেড়েছে। এসব তরুণদের বেশিরভাগের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নের প্রমাণ এবং একটি চাকরির চুক্তির প্রতিশ্রুতি থাকা সত্ত্বেও গণহারে বহিষ্কার আদেশ দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে অভিবাসন সংস্থা ও এনজিওগুলো।

দুপুরের খাবার গ্রহণের সময় গত ২ জুলাই প্যারিসের ইল-দ্য-ফ্রন্সঁ রিজিওনের অন্তর্গত পার্ক-দ্য-সু এর প্রাঙ্গণ জুড়ে শুরু হয় পিকনিকের আবহ।

গ্রীষ্মের রৌদ্রোজ্জ্বল দিনে স্থানীয় ৯২ নং বিভাগের সকল স্বেচ্ছাসেবক এবং সুবিধাভোগী তরুণ বিদেশিদের জন্য একটি বড় পিকনিকের আয়োজন করে এডুকেশন উইদাউট বর্ডারস নেটওয়ার্ক (আরইএসএফ)। 

সকল সহযোদ্ধা অধিকারকর্মী, স্বেচ্ছাসেবক এবং বিদেশি তরুণরা পিকনিকের এই আনন্দঘন ও বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশ উপভোগ করার চেষ্টা করলেও সময়টা বেশ ভালো যাচ্ছে না। অনেক তরুণেরই ভবিষ্যৎ অনেকটা অন্ধকারাচ্ছন্ন৷ 

পিকনিকস্থলে একটি ব্যানারে নিজেদের অভ্যবক্তি লিখছেন ভুক্তভোগী তরুণেরা। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস
পিকনিকস্থলে একটি ব্যানারে নিজেদের অভ্যবক্তি লিখছেন ভুক্তভোগী তরুণেরা। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস


২০২০ সাল থেকে ১৮ বছর বয়সের আগে ফ্রান্সে প্রবেশ করা তরুণ অভিবাসীদের মধ্যে যারা নাবালক হিসেবে স্বীকৃতি পেতে ব্যর্থ হয়েছেন এমন তরুণ বিদেশিদের প্রাপ্তবয়স্ক অর্থাৎ ১৮ বছর হওয়ার সাথে সাথে ফরাসি অঞ্চল ছেড়ে যাওয়ার বাধ্যবাধকতা ওকিউটিএফ প্রদান করা হচ্ছে। 

হাতিয়ার: দারমানা সার্কুলার

এডুকেশন উইদাউট বর্ডারস নেটওয়ার্ক (আরইএসএফ) এর জানিয়েছে, পশ্চিম প্যারিসের সমৃদ্ধ ও ধনী উ-দ্য-সেইন বা ৯২ নং ডিপার্টমেন্ট কর্তৃপক্ষ বিগত দেড় বছরে ৭০ থেকে ৮০ জন তরুণকে বহিষ্কার আদেশ দিয়েছে। তবে তাত্ত্বিকভাবে নোটিশপ্রাপ্ত সব তরুণের বহিষ্কার বাস্তবায়ন ঠেকানো গেলেও ওকিউটিএফ নামক আইনি নোটিশটি তরুণদের প্রাত্যহিক জীবনে নানা প্রশাসনিক সমস্যা সৃষ্টি করেছে এবং ফ্রান্সে বৈধতা প্রাপ্তিকে আরও দীর্ঘ করছে।  

যদিও সংশ্লিষ্ট সব তরুণই ২১ বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের জন্য নির্ধারিত সামাজিক সহায়তা দপ্তর এএসই এর সাথে চুক্তিবদ্ধ। আইন অনুযায়ী ২১ বছর পর্যন্ত তাদের সব দায়িত্ব এএসই বহন করবে। 

কিন্তু এই চুক্তিতে থাকার পরও প্রশাসন এখন গণহারে বহিষ্কার আদেশ প্রদান করছে বলে অভিযোগ এনজিওগুলোর। 

আরইএসএফ এর ৯২ নং ডিপার্টমেন্টের সদস্য আর্মেল গার্দিয়া বলেন, “পরিস্থিতি আগে এমন ছিল না। ২০২০ সালের অক্টোবর এর আগে এএসই এর আওতায় থাকা অনিয়মিত তরুণ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে বছরে সব মিলিয়ে মাত্র দুই বা তিনটি ওকিউটিএফ জারি করা হতো।”

আরইএসএফ এর স্বেচ্ছাসেবকরা বিশ্বাস করেন, “প্রেফেকচুর এবং এএসই যৌথভাবে সমস্যা তৈরি করছে যাতে করে তরুণরা প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরও রেসিডেন্স কার্ড বা তিথ-দ্য-সেজ্যুর পেতে ব্যর্থ হয়। বিশেষ করে ২০২১ সালের ২১ সেপ্টেম্বর জারি হওয়া ‘দারমানা সার্কুলার’ ব্যবহার করে এই কাজ করা হচ্ছে। অথচ নিয়ম অনুযায়ী নাবালক প্রমাণে ব্যর্থ হলেও তরুণেরা শুরু থেকে টানা এএসই এর সাথে চুক্তিতে আছেন এবং শর্ত হিসেবে নিয়মিত পড়াশোনা অথবা কাজের চুক্তির প্রতিশ্রুতি জমা দেয়ার নিশ্চয়তা দিচ্ছেন।” 

দারমানা সার্কুলার অনুযায়ী যেকোন স্থানীয় প্রেফেকচুর চাইলে ১৮ বছর হওয়ার আগেই ব্যক্তিগত পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে সুরক্ষার আবেদন করা একজন নাবালককে ডেকে তার প্রাশাসনিক বৈধতার ব্যাপারে আলোচনা করতে পারে। এটি মূলত নাবালক ও সদ্য প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য একটি সুযোগ হিসেবে রাখা হয়েছে।

তবে এটিকে এখন বাধ্যতামূলক করে সম্পূর্ণ অপব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানায় অভিবাসন সংস্থা এডুকেশন উইদাউট বর্ডারস নেটওয়ার্কসহ প্যারিসের এনজিও ও অধিকার সংগঠনগুলো। 

“আমাকে সুযোগ দেওয়া হয়নি”

আর্মেল গার্দিয়ার বলেন, “এএসই তরুণ বিদেশিদের ১৮ বছর হওয়ার আগেই জোরপূর্বক প্রশাসনিক এপয়েন্টমেন্ট দিয়ে প্রেফেকচুরে পাঠিয়ে দিচ্ছে। তরুণদের উপর রীতিমত এটি চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে।”

এই অধিকার কর্মী দুঃখ প্রকাশ করে আরও বলেন, “সাধারণত নাবালক স্বীকৃতি পেতে ব্যর্থ হওয়া তরুণদের প্রেফেকচুরে পাঠানোর আগে অন্তত ছয় মাসের একটি বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করেছেন এমন প্রমাণ দিতে হয়। এতে সদ্য প্রাপ্তবয়স্ক হওয়া অভিবাসীরা বৈধতা ও বৈধ কাজের অনুমতি পেতে পারেন। কিন্তু এএসএই এসব নথি প্রস্তুত হওয়ার আগেই তরুণদের প্রেফেকচুরে পাঠিয়েছে যাতে করে তাদের বৈধতা না দিয়ে ফরাসি অঞ্চল ত্যাগ করার বাধ্যবাধকতা বা ওকিউটিএফ নোটিশ দেয়া হয়।” 

তার মতে, “এই পরিণত এপয়েন্টমেন্টের ফলাফল হচ্ছে পরবর্তীতে তরুণেরা শিক্ষানবিশ চুক্তিতে স্বাক্ষর করা সত্ত্বেও তাদের বিরুদ্ধে ওকিউটিএফ জারি করা হয়েছিল।”

ঠিক এমনটি ঘটেছে তরুণ অভিবাসী সামাসার ক্ষেত্রে। আফ্রিকার দেশ গিনি থেকে আসা এই ১৯ বছর বয়সি ২০২০ শিক্ষাবর্ষের শুরুতে বেকারি শিল্পের উপর সেআপে নামে একটি বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ শুরু করেছিলেন।

পার্ক-দ্য-সু এর ঘাসের উপর বসে থাকা অবস্থায় সামাসা বলেন, “যখন আমি কোর্সটিতে নিবন্ধন করি, তখন এএসই আমাকে একটি অস্থায়ী বসবাসের অনুমতি এবং কাজের অনুমতি নিতে প্রেফেকচুরে যেতে বলে।”

২০২০ সালের নভেম্বরে সামাসা প্রেফেকচুর থেকে একটি ওকিউটিএফ নোটিশ পান। যুক্তি হিসেবে বলা হয় তিনি নূন্যতম ছয় মাস ধরে কোর্সে আছেন এমন প্রমাণ দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। 

বেকারি শিল্পের উপর সেআপে নামে একটি বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ  শুরুর পরেও প্রেফেকচুর থেকে ওকিউটিএফ নোটিশ পান গিনি থেকে আসা তরুণ সামাসা। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস
বেকারি শিল্পের উপর সেআপে নামে একটি বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ শুরুর পরেও প্রেফেকচুর থেকে ওকিউটিএফ নোটিশ পান গিনি থেকে আসা তরুণ সামাসা। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস


সামাসা বলেন, ‘‘আমি সবেমাত্র সেপ্টেম্বরে কোর্স শুরু করেছিলাম। আমার আরও সময়ের প্রয়োজন ছিল। আমার তখন মাত্র এক মাসের বেতনের রসিদ ছিল। আমি বিশ্বাস করি প্রেফেকচুর আমাকে সুযোগ দেয়নি।’’

যদিও সামাসা এই বেকারিতে প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন, সেটির মালিক তাকে পূর্ণ সমর্থন দিয়েছিলেন এবং কাজের অনুমতি না থাকা সত্ত্বেও সকল সহায়তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। 

সামাসা বলেন, “আমার মালিক গতবছরও আমাকে সাথে নিয়ে একবার প্রেফেকচুরে গিয়েছিলেন। তিনি সাথে করে প্রমাণ হিসেবে আমার তৈরি করা ক্রোয়াসঁও নিয়েছিলেন। যাতে করে প্রেফেকচুরকে রাজি করানো যায়। কিন্তু আমাদেরকে এপয়েন্টমেন্ট ছাড়া ঢুকতে দেয়া হয় নি।”

আরেক সদ্য প্রাপ্তবয়স্ক হওয়া তরুণ অভিবাসী মুসাও একই সমস্যার শিকার একজন ভুক্তভোগী। পেইন্টিং এবং কারিগরি খাতের দুটি প্রশিক্ষণ কোর্সের পরে আরও একটি কোর্স শুরু করতে চেয়েছিলেন মুসা। কিন্তু এই তরুণও চলতি বছরের জানুয়ারিতে পাওয়া একটি ওকিউটিএফ নোটিশের কারণে আইনি বাধ্যবাধকতায় বৈধতা প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত। 

অবশ্য তার ক্ষেত্রে কারণ দেখানো হয়েছে, তার বাবা-মা এখনও আফ্রিকার দেশ মালিতে থাকেন। দারমানা সার্কুলার প্রেফেকচুরগুলোকে কোনো তরুণ অনিয়মিতকে বৈধতা প্রদানের আগে মূল দেশে থাকা পরিবারের সাথে তরুণের সম্পর্কের প্রকৃতি বিবেচনায় নেওয়ার উৎসাহ দেয়। তবে সার্কুলারে এটি নিয়ে বিস্তারিত কিছুই উল্লেখ করা হয় নি।

ওকিউটিএফ নোতিশের কারণে বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষন শুরু করতে পারছেন না তরুণ অভিবাসী মুসা। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস
ওকিউটিএফ নোতিশের কারণে বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষন শুরু করতে পারছেন না তরুণ অভিবাসী মুসা। ছবি: ইনফোমাইগ্রেন্টস


উ-দ্য-সেইন বা ৯২ নং ডিপার্টেমেন্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রেফেকচুর ২০২০ সালে ৯৭ জন নাবালককে প্রশাসনিক এপয়েন্টমেন্ট দিয়ে ডেকেছিল। যেটি ২০২১ সালে গিয়ে দাঁড়ায় ৩৯৯ এ। 

তবে ৯২ ডিপার্টমেন্টের প্রেফেকচুর ইনফোমাইগ্রেন্টসকে জানিয়েছে, প্রশাসনিক পরিস্থিত যাচাইয়ের জন্য নাবালকদের ডাকা হলেও তাদের বিরুদ্ধে ওকিউটিএফ জারি করার হারে কোনো পরিবর্তন হয়নি।

নাবালক থেকে সদ্য প্রাপ্তবয়স্কদের ওকিউটিএফ জারিসহ বিভিন্ন কারণে কয়েক মাস ধরে ৯২ নং প্রেফেকচুর এবং অভিবাসন সংস্থাগুলোর মধ্যে সম্পর্কের মারাত্মক অবনতি হয়েছে। 

অধিকারকর্মী আমেল গার্দিয়া দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, “এই প্রেফেকচুরের নতুন প্রধান প্রশাসক দায়িত্ব গ্রহণের পর একবারও আমাদের সাথে বসেননি এং চিঠিরও উত্তর দেননি। এমনকি বিখ্যাত অভিবাসন সংস্থা লা সিমাদের পাঠানো একটি চিঠির প্রাপ্তি স্বীকার না করেই সেটি ফেরত পাঠিয়েছেন।” 


মূল প্রতিবেদন জুলিয়া দ্যুমো। ফরাসি থেকে ভাষান্তর মোহাম্মদ আরিফ উল্লাহ।


এমএইউ/এআই


 

অন্যান্য প্রতিবেদন