ত্রিপোলি থেকে প্রায় ১২০ কিলোমিটার পূর্বে খোমসে লিবিয়ার উপকূলরক্ষীরা অভিবাসীদের সমুদ্র থেকে উদ্ধার করেন৷ ফাইল ছবি: এপি/হাজেম আহমেদ
ত্রিপোলি থেকে প্রায় ১২০ কিলোমিটার পূর্বে খোমসে লিবিয়ার উপকূলরক্ষীরা অভিবাসীদের সমুদ্র থেকে উদ্ধার করেন৷ ফাইল ছবি: এপি/হাজেম আহমেদ

জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা (আইওএম) লিবিয়ায় ফিরে আসা অভিবাসীদের সর্বশেষ সংখ্যা জানিয়েছে৷ এক সপ্তাহে প্রায় ৩০০ জন অভিবাসীকে লিবিয়ায় ফেরত পাঠানো হয়েছে৷ চলতি বছর এ পর্যন্ত ১০ হাজার ২০০ জন লিবিয়ায় ফিরে এসেছেন৷

৩ থেকে ৯ জুলাইয়ের মধ্যে লিবিয়ায় ২৯৯ জন অভিবাসীর প্রত্যাবর্তন নিবন্ধিত করে আইওএম৷ এর মধ্যে ১৬ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক রয়েছেন৷ ভূমধ্যসাগর পেরিয়ে ইউরোপে পৌঁছানোর চেষ্টা করার সময় লিবিয়ার উপকূল থেকে তাদের গ্রেপ্তার বা উদ্ধার করা হয়েছিল৷

আইওএম বলছে, ২০২২ সালের শুরু থেকে লিবিয়া থেকে আসা কমপক্ষে ১৭৫ জন অভিবাসী সমুদ্রে প্রাণ হারিয়েছেন৷ অন্তত ৬৩৪ জন ওই পথে নিখোঁজ হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে৷

দেশের উপকূলরক্ষীরা কতজনকে আটক করেছেন এবং লিবিয়ায় ফিরে আসা অভিবাসী সংখ্যার নিয়মিত আপডেট রাখে আইওএম৷ সমুদ্রে কতজন অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে সেই হিসাবও রাখে সংস্থাটি৷

লিবিয়ায় 'ভয়াবহ পরিস্থিতি'

আইওএম এবং জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) যৌথ বিবৃতি জারি করে গত বছর জানিয়েছিল, সমুদ্রে উদ্ধারের পর লিবিয়ায় ফিরিয়ে দেওয়া উচিত নয়৷ আন্তর্জাতিক সমুদ্র আইন অনুযায়ী, উদ্ধার করা ব্যক্তিদের নিরাপদ স্থানে নামানো উচিত৷

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'লিবিয়ায় পৌঁছানো অভিবাসী এবং শরণার্থীরা প্রায়ই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে পড়েন৷ চাঁদার জুলুম চলে অনেক সময়, কেউ নিখোঁজ হয়ে যান৷ তার কোনো হিসাব থাকে না৷ কেউ কেউ মানবপাচারের শিকার হন৷ 


আরকেসি/এআই

 

অন্যান্য প্রতিবেদন