গ্রিসে অনুমিতবিহীনভাবে বসবাসরত অনিয়মিত অভিবাসীদের বিরুদ্ধে গত মার্চে এথেন্সে অভিযান চালায় পুলিশ৷ ছবি: Dimitris Aspiotis/Pacific Press
গ্রিসে অনুমিতবিহীনভাবে বসবাসরত অনিয়মিত অভিবাসীদের বিরুদ্ধে গত মার্চে এথেন্সে অভিযান চালায় পুলিশ৷ ছবি: Dimitris Aspiotis/Pacific Press

মানবপাচারে জড়িত একটি আন্তর্জাতিক অপরাধ গোষ্ঠীর নেটওয়ার্ক ভেঙে দেয়ার দাবি করেছে গ্রিস৷ গত সপ্তাহে রাজধানী এথেন্সে এক অভিযান চালায় পুলিশ৷

বুধবার গ্রিসের আর্থিক পুলিশ অধিদপ্তর অভিযানটি পরিচলানা করে বলে খবর প্রকাশ করেছে গ্রিসের সংবাদমাধ্যম ইকাথিমেরিনির ইংরেজি সংস্করণ৷ গত দুইদিনে এই বিষয়ে বিস্তারিত খবর বের হয়৷ গ্রিক পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, সন্দেহভাজন চক্রটি বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের পাচার করে গ্রিসে এনে এথেন্সে কয়েকটি অ্যাপার্টমেন্টে রাখতো৷ পরে অর্থের বিনিময়ে তাদের ইউরোপের বিভিন্ন গন্তব্যে পাঠিয়ে দিতো৷ 

এই চক্রের সদস্য সন্দেহে নয়জন বিদেশি ও তিন অভিবাসীকে আটক করেছে পুলিশ৷ 

ইংরেজি দৈনিক গ্রিক রিপোর্টার জানিয়েছে, সম্প্রতি আরো ১৯ জনের বিরুদ্ধে মানবপাচারের অভিযোগ দায়ের করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী৷

পড়ুন: মৌসুমি ভিসায় ১৫ হাজার বাংলাদেশি কর্মী আনার বিল পাস গ্রিক সংসদে

আন্তর্জাতিক শরণার্থী সংস্থা-ইউএনএইচসিআরের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর ১৭ জুলাই পর্যন্ত গ্রিসে ছয় হাজার ১৭১ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী পৌঁছেছেন৷ তাদের মধ্যে তিন হাজার ৩৮৮ জনই এসেছেন তুরস্কের উপকূল হয়ে৷ এভ্রোস নদী পেরিয়ে স্থলপথে এসেছেন দুই হাজার ৭৮৩ জন৷ 

আগতদের মধ্যে ৩১ শতাংশ ফিলিস্তিনের, আট দশমিক সাত শতাংশ আফগানিস্তানের এবং সাড়ে আট শতাংশ সোমালিয়ার৷ শীর্ষ ১২টি দেশের মধ্যে আছেন ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গো, সিরিয়া, ইরান, ক্যামেরুন, পাকিস্তান, ইরাক এবং কুয়েতের নাগরিক৷ 

পড়ুন: সিলেট থেকে গ্রিস: বাংলাদেশি অভিবাসীর দীর্ঘ ও দুঃসহ যাত্রা

গত জুনে গ্রিসের নাগরিক সুরক্ষামন্ত্রী টাকিস টেহোডোরিকাকোস স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম এথেন্স নিউজকে মানবপাচার চক্রের বিরুদ্ধে পুলিশের জোরদার অভিযান পরিচালনার কথা জানিয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘আমাদের লক্ষ্য অবৈধ অভিবাসন, মানব পাচার এবং অবশ্যই মাদকের বিস্তরের বিরুদ্ধে লড়াই৷’’

‘বিশেষ অভিযানের’ অংশ হিসেবে সামনের দিনে গ্রিসের দ্বিতীয় বৃহৎ শহর আটিকায় অভিযান হতে পারে বলে জানিয়েছে এথেন্স নিউজ৷

পড়ুন: ফেরত পাঠানোর শঙ্কায় গ্রিসের অনিয়মিত বাংলাদেশিরা

এফএস/এসিবি

 

অন্যান্য প্রতিবেদন