গ্রিসের একটি খামারের কাছের রেল লাইনে তিন অভিবাসী | ছবি: ইমেগো
গ্রিসের একটি খামারের কাছের রেল লাইনে তিন অভিবাসী | ছবি: ইমেগো

গ্রিসের উত্তরাঞ্চলে অভিবাসী গ্যাংয়ের পৃথক পৃথক হামলায় এক পাকিস্তানি অভিবাসী নিহত হয়েছেন এবং এক লেবানীয় নারী তার গর্ভে থাকা সন্তান হারিয়েছেন৷ উত্তর মেসিডোনিয়া সীমান্ত সংলগ্ন গ্রিসের এই অঞ্চলটিতে অন্য অভিবাসীদের জিনিসপত্র চুরিসহ নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন অভিবাসী অপরাধী চক্র৷

গ্রিক শহর কিলকিসের একটি জঙ্গলের কাছে গত রোববার ২৩ বছর বয়সি এক পাকিস্তানিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে অভিবাসীদের একটি গ্যাংয়ের সদস্যরা৷ উত্তর মেসিডোনিয়া সীমান্ত থেকে মাত্র ২০ কিলোমিটার দূরে ঘটনাটি ঘটেছে৷  

গ্রিক সংবাদ সংস্থা এএনএ লিখেছে, আফগান এবং সিরীয় অভিবাসীদের গ্যাংটি কাঠের লাঠি দিয়ে ভুক্তভোগীর উপর হামলা চালায়৷ এসময় কয়েক অভিবাসীর কাছ থেকে ২০০ ইউরো এবং মোবাইল ফোনও কেড়ে নেয় তারা৷ 

হামলকারীদের মধ্য থেকে চারজনকে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷  

সেই ঘটনায় কয়েকঘণ্টা পর একই এলাকায় আরেক ঘটনায় এক অন্তঃসত্ত্বা নারী তার অনাগত সন্তান হারিয়েছেন৷ সেই নারী এবং তার পরিবারের সদস্যরা এক পাচারকারীর সহায়তায় উত্তর মেসিডোনিয়াতে যাচ্ছিলেন৷ কিন্তু সেই পাচারকারী এক পর্যায়ে লেবাননের নারীর কাছ থেকে দুই হাজার ইউরো কেড়ে নেন৷ তখন ধস্তাধস্তিতে সেই নারী আহত হন এবং তার গর্ভে থাকা সন্তানটি নষ্ট হয়৷

হামলাকারী সেসময় আরেক শিশুকেও আহত করে যে নারীটিকে সহায়তায় এগিয়ে এসেছিল৷ 

উল্লেখ্য, মধ্য ইউরোপমুখী শরণার্থী ও অভিবাসীরা গ্রিসসহ বলকান বিভিন্ন দেশে মাঝেমাঝেই সিরীয়, আফগান ও পাকিস্তানি অভিবাসী গ্যাংয়ের খপ্পড়ে পড়েন৷ এসব অপরাধী চক্র তাদের কাছে থাকা অর্থ, মোবাইলসহ বিভিন্ন দামি জিনিস হাতিয়ে নেয়৷ 

এআই/কেএম

 

অন্যান্য প্রতিবেদন