সুদান থেকে লিবিয়া  যাওয়ার পথে এই অভিবাসীরা যাত্রা শেষ করতে পারেনি৷ ছবি: পিকচার অ্যালায়েন্স
সুদান থেকে লিবিয়া যাওয়ার পথে এই অভিবাসীরা যাত্রা শেষ করতে পারেনি৷ ছবি: পিকচার অ্যালায়েন্স

সুদান সীমান্তের কাছে মরুভূমিতে শুক্রবার অন্তত ১৫ অভিবাসীর মরদেহের সন্ধান পাওয়ার কথা জানিয়েছে লিবিয়া৷ অন্যদিকে যৌথ অভিযানে ২০ জনের মরদেহ উদ্ধারের তথ্য জানিয়েছে সুদানের সংবাদ সংস্থা৷

সুদান সীমান্ত পাড়ি দিয়ে লিবিয়ায় প্রবেশ করতে যাওয়া অভিবাসীদের একটি দল দুইদেশের সীমান্তবর্তী মরুভূমিতে মারা গেছেন৷ দুই দেশের বাহিনীর যৌথ অভিযানে মৃত ও জীবত কয়েকজনকে উদ্ধারের তথ্য জানা গেছে৷ বার্তা সংস্থা এপি লিবিয়া কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে অন্তত ১৫ জনের মরদেহ উদ্ধারের কথা জানিয়েছে৷ তারা উন্নত জীবনের আশায় লিবিয়া হয়ে ইউরোপে যাওয়ার প্রত্যাশায় ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ 

লিবিয়ার দক্ষিণ পূর্ব শহর কুফরার অনিয়মিত অভিবাসনবিরোধী দপ্তর জানিয়েছে, এই অভিবাসীরা একটি গাড়িতে সুদান থেকে লিবিয়া আসছিলেন৷ কিন্তু পথে তাদের জ্বালানি তেল ফুরিয়ে যাওয়ায় যাত্রা সমাপ্ত করতে পারেনি৷ তাদের সঙ্গে পর্যাপ্ত খাদ্য ও পানীয়ও ছিল না৷  

সংস্থাটি জানিয়েছে, নয়জন অভিবাসীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে, আরো দুইজন মরুভূমিতে নিখোঁজ আছেন৷ এই অভিবাসীদের মধ্যে নারী ও শিশু আছে বলেও উল্লেখ করেছে তারা৷ 

অভিবাসীদের সবাই সুদানি বলে জানিয়েছে লিবিয়া কর্তৃপক্ষ৷ অভিবাসীরা ইউরোপগামী নৌকার সন্ধানে পশ্চিম লিবিয়ায় যাচ্ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ 

এদিকে সুদানের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসইউএনএ এর বরাত দিয়ে জার্মান বার্তা সংস্থা ডিপিএ জানিয়েছে শুক্রবার দুই দেশের যৌথ অভিযানে ২০ জনের মরদেহের খোঁজ পাওয়া গেছে৷ দেশির কর্তৃপক্ষের ধারণা দুইটি যানে মোট ২৮ জন অভিবাসী সীমান্ত পাড়ি দেয়ার চেষ্টা করছিলেন৷ 

লিবিয়া আসতে যাওয়া অভিবাসীদের মরুভূমিতে এমন করুণ পরিণতি বরণ এবারই প্রথম নয়৷ ২০ জুন কুফরায় লিবিয়ার আরেক প্রতিবেশী দেশ চাদ সীমান্তে তৃষ্ণায় মৃত্যুবরণ করা ২০ অভিবাসীর মরদেহ উদ্ধার করেছে কর্তৃপক্ষ৷ 

যুদ্ধ বিধ্বস্ত লিবিয়া দীর্ঘদিন ধরেই ইউরোপে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের অন্যতম ট্রানজিট পথ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে৷ মানবাপাচারকারীদের সহায়তায় আফ্রিকা ও এশিয়ার অভিবাসীরা দেশটির উপকূল থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইটালি পৌঁছানোর চেষ্টা করেন৷ অনুপযুক্ত নৌকায় বিপজ্জনক এই পথ পাড়ি হরহামেশা দুর্ঘটনা ঘটছে৷ 

এফএস/কেএম (এপি, ডিপিএ)

পড়ুন: অনিয়মিত পথে কেন মধ্যপ্রাচ্য থেকে ইউরোপে বাংলাদেশিরা?

 

অন্যান্য প্রতিবেদন