এজিয়ান সাগরে পুশব্যাক হওয়া অভিবাসীদের কয়েকটি দল। ছবি: এজিয়ান বোট রিপোর্ট
এজিয়ান সাগরে পুশব্যাক হওয়া অভিবাসীদের কয়েকটি দল। ছবি: এজিয়ান বোট রিপোর্ট

তুরস্ক থেকে দক্ষিণ-পূর্ব এজিয়ান সাগরের গ্রিক দ্বীপ লেরোসে এসে পৌঁছানো অভিবাসীদের একটি দল জানিয়েছে, তাদের সাথে থাকা ছয় অভিবাসী সমুদ্রে নিখোঁজ হয়েছেন। নিখোঁজ অভিবাসীদের খুঁজতে সমুদ্র ও আকাশপথে অভিযান শুরু করেছে গ্রিক কর্তৃপক্ষ।

গ্রিসের উপকূলরক্ষীরা জানিয়েছেন, এজিয়ান সাগরে অবস্থিত লেরোস দ্বীপের একটি সৈকতে ৪৯ জন অভিবাসীকে পাওয়া গেছে। অভিবাসীরা সবাইকে সুস্থ্য অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

উদ্ধার হওয়া অভিবাসীরা জানায়, তুরস্ক উপকূল ছেড়ে যাওয়ার সময় তাদের সাথে মোট ৫৫ জন অভিবাসী যাত্রা করেছিল। 

অর্থাৎ, তাদের সাথে থাকা আরও ৬ অভিবাসী নিখোঁজ রয়েছে। 

আরও পড়ুন>>গ্রিস থেকে পুশব্যাক: তুরস্কে অভিবাসীদের মানবেতর জীবন

এথেন্স কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিখোঁজ অভিবাসীদের সন্ধানে এজিয়ান সাগরের দ্বীপগুলোতে এবং ড্রোনের সাহায্যে আকাশপথে অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। 

গ্রিক উপকূলরক্ষীরা জানিয়েছে, ভূমধ্যসাগরের পাইলোসের বন্দরের ৬৫ মাইল দক্ষিণ-পশ্চিমে অভিবাসীদের বহনকারী আরেকটি কাঠের নৌকায় ঝুঁকিতে থাকা অভিবাসীদের অবস্থান ড্রোনের মাধ্যমে খুঁজে বের করা সক্ষম হয়েছে।

পড়ুন>>ভাইরাল এজিয়ান সাগরে ৩৫ অভিবাসীকে পুশব্যাকের ভিডিও

ঝুঁকিতে থাকা এই নৌকা থেকে ৮২ জন অভিবাসীকে একটি পর্তুগিজ-পতাকাবাহী বাণিজ্যিক জাহাজ উদ্ধার করে এবং অপর তিন জনকে লাইবেরিয়ার পতাকাবাহী একটি ট্যাঙ্কার জাহাজ উদ্ধার করেছে বলে জানতে পেরেছে গ্রিক কোস্টগার্ড।

উদ্ধারকৃত এই ৮৫ জনকে কালামাতার দক্ষিণ বন্দরের কাছে একটি কেন্দ্রে রাখা হয়। পরবর্তীতে সেখান থেকে কোস্ট গার্ডের ছোট বোটে গ্রিক ভূখন্ডে নিয়ে আসা হয়। 

আরও পড়ুন>>এজিয়ান সাগরে ছয় অভিবাসীর মৃত্যু

এছাড়া, গ্রিসের দক্ষিণ উপকূলে ঝুঁকিতে থাকা একটি নৌকা থেকে ৮৫ অভিবাসীকে উদ্ধার করা একটি বাণিজ্যিক জাহাজ ইটালি উপকূলের দিকে যাত্রা করার তথ্য পেয়েছে এথেন্স। উপরোক্ত দুটি নৌকার মতো এই নৌকাটির অবস্থান শনাক্ত করতে কাজ চলছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কোস্টগার্ড। 

উন্নত জীবনের আশায় মধ্যপ্রাচ্য, আফ্রিকা এবং এশিয়া থেকে ইউরোপে পৌঁছাতে চাওয়া অভিবাসীদের জন্য গ্রিস একটি প্রধান গন্তব্যস্থল।


এমএইউ/আরআর (এপি)



 

অন্যান্য প্রতিবেদন