লেবানন উপকূলে টহলরত দেশটির একটি উদ্ধার জাহাজ। ছবি: রয়টার্স
লেবানন উপকূলে টহলরত দেশটির একটি উদ্ধার জাহাজ। ছবি: রয়টার্স

শুক্রবার সিরিয়া কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, উত্তর লেবানন উপকূল থেকে প্রায় ১৫০ জন নিয়ে যাত্রা করা একটি নৌকা সিরিয়া উপকূলে ডুবে অন্তত ৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের মধ্যে ২০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

উত্তর লেবানন থেকে ইউরোপের উদ্দেশ্যে যাত্রা করা একটি অভিবাসী নৌকা ২২ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার,পশ্চিম সিরিয়ার টারতুস শহরের কাছে ডুবে গিয়েছে বলে জানায় সিরিয়া কর্তৃপক্ষ।

নৌকাডুবিতে অন্তত ৯৭ জন অভিবাসীর মারা গেছে।  

সিরিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী হাসান আল-ঘবাচ জানিয়েছেন, “উদ্ধারকৃতদের মধ্যে আল-বাসেল হাসপাতালে ২০ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।”

আরও পড়ুন>>লেবানন থেকে ৯৬ জনকে ইটালি পাচারের চেষ্টা: গ্রিসে আটক ৫

লেবাননের পরিবহনমন্ত্রী আলী হামি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, “জীবিত উদ্ধার হওয়াদের মধ্য পাঁচজন লেবানিজ রয়েছে।”

সিরিয়ার বন্দর মহাপরিচালক সামের কব্রাসলি বেঁচে যাওয়া অভিবাসীদের বরাত দিয়ে বলেছেন, “মঙ্গলবার নৌকাটি উত্তর লেবাননের মিনি অঞ্চল থেকে ১২০ থেকে ১৫০ জন লোক নিয়ে ইউরোপের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিল। সিরিয়ার টারতুস শহরের কাছে অবস্থিত আরওয়াদ দ্বীপের কাছে সর্বপ্রথম একজন অভিবাসী যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল।

এই কর্মকর্তা আরও বলেন, নিহতদের মধ্যে একজন শিশু রয়েছে। যদিও উক্ত শিশুর বয়স জানা এখনও সম্ভব হয় নি। ডুবে যাওয়া সম্ভাব্য জীবিতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা এখনও অব্যাহত রয়েছে। 

পড়ুন>>সিরীয় শরণার্থীদের বহিষ্কারের হুমকি লেবাননের

সিরিয়ার পরিবহন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা সোলাইমান খলিলের মতে, “পুরো সিরিয়ার উপকূলের বিস্তৃত এলাকা জুড়ে অভিযান চলছে। তবে সমুদ্রের উচ্চ ঢেউ উদ্ধার অভিযানকে জটিল করে তুলছে। একটি রাশিয়ান সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারও জীবিতদের সন্ধানে সমুদ্রে টহল দিচ্ছে।” 

লেবাননের নৌ বিশেষজ্ঞ মোহাম্মদ নুরের মতে, “নৌকাটি সম্ভবত সাইপ্রাসের দিকে যাচ্ছিল।”

পড়ুন>>সিরীয় ডাক্তারের ভ্রাম্যমাণ ক্লিনিক লেবাননে

বেশ কয়েক মাস ধরে, গুরুতর অর্থনৈতিক সংকট থেকে বাঁচতে লেবাননের বহু নাগরিক এবং দেশটিতে অবস্থানরত অভিবাসীরা ইউরোপের উদ্দেশ্যে পাড়ি দিচ্ছে। বিশেষত বড় মাছ ধরার নৌকায় যাত্রার সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। 


এমএইউ/আরআর 


 

অন্যান্য প্রতিবেদন