হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্ট থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সার্বিয়া সীমান্তে নিরাপত্তা বাহিনীর টহল। ছবি: ইপিএ
হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্ট থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সার্বিয়া সীমান্তে নিরাপত্তা বাহিনীর টহল। ছবি: ইপিএ

সার্বিয়া পুলিশ অনিয়মিত পথে আসা ২০০ অভিবাসীকে প্রতিবেশী দেশ হাঙ্গেরিতে প্রবেশে বাধা দিয়েছে। বলকান দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বেআইনি প্রবেশ ঠেকানোর পাশাপাশি অভিবাসীদের কাছ থেকে অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

সার্বিয়া ও অন্যান্য বলকান দেশগুলোর সীমান্ত জুড়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নে প্রবেশ করতে চাওয়া অনিয়মিত অভিবাসী এবং শরণার্থীদের সংখ্যা সাম্প্রতিক মাসগুলিতে বেড়েছে। এসব অভিবাসীদের মধ্যে অনেকেই মানবপাচার নেটওয়ার্ক ব্যবহার করছে বলে দাবি করেছে বেলগ্রেড কর্তৃপক্ষ।

সার্বিয়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার জানিয়েছে, সিরিয়া, আফগানিস্তান, পাকিস্তান,মধ্য এশিয়া এবং অন্যান্য মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে আসা ২০০ জন অনিয়মিত অভিবাসীকে সার্বিয়ার উত্তরে অবস্থিত হাঙ্গেরি সীমান্তে প্রবেশে বাধা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন>>অনিয়মিত অভিবাসন ঠেকাতে মধ্য ইউরোপের দেশগুলোর নতুন ব্যবস্থা

পুলিশ জানিয়েছে, সার্বিয়ার উত্তরে তিসা নদীর ধারে অবস্থিত একটি অস্থায়ী ক্যাম্পে অভিযানের সময় তারা নগদ অর্থ এবং অস্ত্রও খুঁজে পেয়েছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলেকসান্ডার ভুলিনকে উদ্ধৃত করে মন্ত্রণালয়ের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, “সীমান্তে বাধা প্রদানের পর অনেক অভিবাসীকে স্থানীয় অভিবাসন কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া আরও কিছু সংখ্যককে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রসিকিউটর অফিসে পাঠানো হয়েছে।”

পুলিশি অভিযানে সীমান্ত থেকে অনিয়মিত অভিবাসীদের গ্রেপ্তার করে সার্বিয়া কর্তৃপক্ষ। ছবি: সার্বিয়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়
পুলিশি অভিযানে সীমান্ত থেকে অনিয়মিত অভিবাসীদের গ্রেপ্তার করে সার্বিয়া কর্তৃপক্ষ। ছবি: সার্বিয়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়


গত সোমবার হাঙ্গেরি, সার্বিয়া এবং অস্ট্রিয়ার নেতারা পশ্চিম বলকান দিয়ে অনিয়মিত পথে ইউরোপীয় ইউনিয়নে অভিবাসীদের প্রবেশের প্রবাহ নিয়ন্ত্রণে কঠোর পদক্ষেপের প্রতিশ্রুতি পরেই সার্বিয়া পুলিশ সীমান্তে অভিযান কঠোর করল। বেশ কিছুদিন ধরে দেশটির সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ সংস্থা সীমান্তে ক্রমবর্ধমান চাপ সামাল দিতে জটিল পরিস্থিতি মোকাবেলা করছিল

পড়ুন>>চেক প্রজাতন্ত্রে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে ২১ অভিবাসনপ্রত্যাশী আহত

সার্বিয়া পুলিশ অভিবাসী পাচারকারী চক্রগুলোকে দমন করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ দাবি করে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “আমাদের দেশ কখনও অনিয়মিত অভিবাসীদের স্তূপ হবে না। বিশেষ করে খারাপ নেটওয়ার্ক এবং পাচার চক্রগুলোর কোনো জায়গা হবে না।”

ইইউ সদস্যপদ প্রার্থী এই দেশ সোমবার আরও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, এটি ইইউ’র সাথে তার ভিসা নীতি কঠোর নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসবে। যাতে অভিবাসীরা সার্বিয়াকে ইইউতে প্রবেশের প্রথম দেশ হিসাবে আর ব্যবহার করতে না পারে। 

সীমান্তে নজরদারি বাড়াল চেক প্রজাতন্ত্র

এদিকে চেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভিট রাকুসান বুধবার বলেছেন, “অনিয়মিত অভিবাসীদের প্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করতে প্রতিবেশী স্লোভাকিয়া সীমান্তে জারি করা অতিরিক্ত নজরদারি ব্যবস্থা আরও ২০ দিন বাড়ানো হয়েছে।”

আরও পড়ুন>>এক লাখ অভিবাসীকে ইইউ দেশগুলো থেকে ফেরতের নির্দেশ

উল্লেখ্য, গত ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে সীমান্তের ২৫২ কিলোমিটার (১৫৭ মাইল) দীর্ঘ অঞ্চলে অতিরিক্ত নজরদারি শুরু করে চেক সীমান্ত পুলিশ। প্রাথমিকভাবে এই ব্যবস্থা ১০ দিনের জন্য করা হয়েছিল। 

কিন্তু, সীমান্তের পরিস্থিতি বিবেচনায় এই ব্যবস্থা আরও ২০ দিন বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রাগ। 

মধ্য ইউরোপীয় এই দেশটি চলতি বছর ইতিমধ্যে প্রায় ১২ হাজার অনিয়মিত অভিবাসীকে আটক করার তথ্য দিয়েছে, যা গত বছর তুলনায় ১২ গুণ বেশি।


এমএইউ/এআই (রয়টার্স)




 

অন্যান্য প্রতিবেদন