উত্তর ফ্রান্সের 'ভিমুরু' সৈকতে টহলরত ফরাসি পুলিশের একটি দল। ছবি: রয়টার্স
উত্তর ফ্রান্সের 'ভিমুরু' সৈকতে টহলরত ফরাসি পুলিশের একটি দল। ছবি: রয়টার্স

জননিরাপত্তা এবং স্বাস্থ্য ঝুঁকির অজুহাতে ইংলিশ চ্যানেল ও উত্তর সাগর উপকূলের ফরাসি শহর কালেতে অবস্থানরত অনিয়মিত অভিবাসীদের কাছে এনজিওগুলোর খাদ্য বিতরণে দেয়া দীর্ঘ নিষেধাজ্ঞা বাতিল করেছে ফরাসি আদালত। এই রায়কে স্বাগত জানিয়েছে উত্তর ফ্রান্সের অভিবাসন সংস্থাও এনজিওগুলো।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বর থেকে একটি প্রশাসনিক ডিক্রি জারি করে কালে শহরের কেন্দ্রে অনিয়মিত অভিবাসীদের মধ্যে খাদ্য ও পানীয় বিতরণ কর্মসূচি নিষিদ্ধ ঘোষণা করে স্থানীয় পা-দ্য-কালে প্রেফেকচুর৷  

বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাল্ড দারমানা এবং প্রেফেকচুরের এই সিদ্ধান্ত অনেকদিন ধরে আইনিভাবে চ্যালেঞ্জের চেষ্টা করে আসছে উত্তর ফ্রান্সের অভিবাসন সংস্থা ও এনজিওগুলো। 

বিগত দুই বছর ধরে প্রতি মাসে এই ডিক্রির মেয়াদ নবায়নের পেছনে কর্তৃপক্ষের যুক্তি ছিল, “জনশৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটতে পারে এমন সম্ভাব্য পরিস্থিতির অবসান ঘটাতে এবং করোনা মহামারি জনিত স্বাস্থ্যঝুঁকি সীমিত করতে কালের কেন্দ্রে খাদ্য বিতরণ কর্মসূচীতে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়েছে৷’’

আরও পড়ুন>>চ্যানেলে নৌকা থেকে পড়ে নিখোঁজ তিন অভিবাসী!

অবশেষে দীর্ঘ এই লড়াইয়ে বিজয়ের দেখা পেল উত্তর ফ্রান্সের অভিবাসন সংশ্লিষ্ট মহল।

অভিবাসন সংস্থা সকুর ক্যাথলিক, মেদসাঁ দ্যু মোন্দ, ওবেরজ দেস মিগ্রঁ সহ প্রায় দশটি সংস্থার দায়ের করা মামলার শুনানিতে মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর উত্তর ফ্রান্সের লিল শহরের প্রশাসনিক আদালত প্রেফেকচুরের এই সিদ্ধান্ত বাতিল করেছে। 

অভিবাসন সংস্থাগুলোর আইনজীবী পাত্রিস স্পিনোসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, “লিলের প্রশাসনিক আদালত প্রেফেকচুরের পক্ষ থেকে সংস্থাগুলোর খাদ্য বিতরণে দেয়া নিষেধাজ্ঞার আদেশ বাতিল করেছে। কালের কেন্দ্রে এখন থেকে অভিবাসীদের খাবার এবং পানীয় বিতরণে আর কোন বাধা নেই।”

পড়ুন>>ফ্রান্সে নতুন একটি প্রশাসনিক আটককেন্দ্র চালুর ঘোষণা

তিনি আরও বলেন, “এই রায় আইনের শাসনের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদি প্রেফেকচুর আর কোনো নতুন ডিক্রি জারির সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে আমরা আজকের রায়ের ভিত্তিতে অন্তর্বর্তী পদক্ষেপের মাধ্যমে সেটি দ্রুত স্থগিত করতে পারব।”

এই রায়ের ব্যাপারে স্থানীয় পা-দ্য-কালে প্রেফেকচুরের সাথে বার্তা সংস্থা এএফপির পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, প্রেফেকচুর আদালতের সিদ্ধান্তের বিষয়ে কখনও মন্তব্য করেনি।

আরও পড়ুন>>উত্তর ফ্রান্সে মানবপাচার নেটওয়ার্ক ভেঙে ফেলার দাবি

রায়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে এটিকে স্বাগত জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট অভিবাসন সংস্থাগুলো। 

অভিবাসন সংস্থা ওবেরজ দে মিগ্রঁ টুইটারে জানায়, “প্রেফেকচুরের লজ্জাকর ডিক্রিটি আদালতের রায়ে বাতিল হয়েছে। দীর্ঘ একটি ডিক্রির সমাপ্তি হল যা আমাদেরকে কালের কেন্দ্রে অভিবাসীদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করতে বাধা প্রদান করেছিল!”

পড়ুন>>ফ্রান্সে ‘উবার ইটস’ একাউন্ট বন্ধে বিপাকে হাজারো অনথিভুক্ত অভিবাসী

আরেক এনজিও ইতুপিয়া ৫৬ জানায়, “আদালত ডিক্রিটি বাতিল করেছে। রায়ে বলা হয়েছে এই নিষেধাজ্ঞা একটি দুর্বল জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রাকে প্রভাবিত করেছে। আদালত সংহতি এবং নায়বিচাররে পক্ষে মত দিয়েছে।”


এমএইউ/আরকেসি




 

অন্যান্য প্রতিবেদন