ভূমধ্যসাগরে উদ্ধারকাজে নিয়োজিত এসওএস মেডিট্রেনির জাহাজ ওশান ভাইকিং৷ ফাইল ফটো৷ জেরেমি লুসেউ৷
ভূমধ্যসাগরে উদ্ধারকাজে নিয়োজিত এসওএস মেডিট্রেনির জাহাজ ওশান ভাইকিং৷ ফাইল ফটো৷ জেরেমি লুসেউ৷

দুইশতাধিক অভিবাসনপ্রত্যাশী নিয়ে ভূম্যধসাগরে ভাসমান বেসরকারি সংস্থা এসওএস মেডিট্রেনির একটি জাহাজ সাগর তীরে অবস্থিত ইউরোপের দেশ ফ্রান্স, স্পেন এবং গ্রিসের কাছে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছে৷

বেশ কয়েকদিন ধরে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে সাগরে ভাসমান জাহাজাটি বন্দরে নোঙরের অপেক্ষায় রয়েছে৷  

জানা গেছে, উদ্ধারকাজে নিয়োজিত এসওএস মেডিট্রেনির জাহাজ ওশান ভাইকিং ভূমধ্যসাগর থেকে ২৩৪ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে সাগরে ভাসছে৷ এসময় জাহাজটি ইউরোপের দেশ মাল্টা এবং ইটালির কাছে সহযোগিতার আহ্বান জানায়৷ 

সংস্থাটির একজন পরিচালক সোফি বো বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘‘আমরা ... বলছি না যে, বন্দর খুলে দিন৷ বরং আমরা বলছি যে সমস্যার সমাধানে আমাদেরকে সাহায্য করুন৷’’  

তার আগে গত ২২ অক্টোবর অভিযান শুরুর পর ইউরোপের দেশ মাল্টা এবং আফ্রিকার দেশ লিবিয়াকে তাদের বন্দরে ভিড়ার অনুমতি প্রদানের আহ্বান জানায়৷  

কিন্তু গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ দেশগুলোর কাছ থেকে বন্দরে ভিড়ার অনুমতির বিষয়ে কোনো উত্তর পায়নি৷ 

জাহাজটিতে বেশ কয়েকজন অপ্রাপ্তবয়স্ক এবং শিশু রয়েছে বলে জানা গেছে৷ 

তাছাড়া সমুদ্রে উদ্ধার কাজে নিয়োজিত আরেক জাহাজ এসওএস হিউম্যানিটিও অনেক অভিবাসনপ্রত্যাশী নিয়ে বন্দরে ভিড়ার অপেক্ষায় সাগরে ভাসছে বলে জানা গেছে৷

পড়ুন: ‘বহিষ্কার’ ও ‘বৈধতা’ দুটিই বৃদ্ধির পরিকল্পনা ফ্রান্সের নতুন অভিবাসন নীতিতে

 সোফি বো বলেন, ‘‘প্রথমবারের মতো আমরা ফ্রান্স, গ্রিস এবং স্পেনের কাছে সহযোগিতা চেয়েছি৷ কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো দেশই এ বিষয়ে কোনো সাড়া দেয়নি৷’’ 

 এদিকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে সাগরে ভাসমান জাহাজটিকে সহায়তা করতে ভূমধ্যসাগরের তীরে অবস্থিত ইউরোপের দেশ ইটালির কাছে কূটনৈতিক বার্তা পাঠিয়েছে জার্মানি৷ 

বার্তায় বলা হয়, ‘‘ভূমধ্যসাগরে মানুষের জীবন বাঁচানোর লক্ষ্যে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করছে জাহাজটি৷ জীবনের ঝুঁকিতে থাকা মানুষকে উদ্ধার করা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপুর্ণ৷ আমরা ইটালি সরকারকে এ বিষয়ে সহযোগিতার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি৷’’

এদিকে ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাল্ড দারামানা বলেন, ‘‘জার্মানির সাথে আমরাও বলছি যে, ইটালি যদি জাহাজটিকে ভিড়ার অনুমতি দেয় তাহলে আমরাও নারী ও শিশুসহ কিছু অভিবাসীকে জায়গা দেব যেন ইটালিকে অভিবাসীদের এই বোঝা একা বইতে না হয়৷’’ তিনি বলেন, ‘‘এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই যে, আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি সম্মান দেখাবে ইটালি৷’’

উল্লেখ্য, এশিয়া এবং আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে হাজার হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী ইউরোপে পৌঁছানোর চেষ্টা করে থাকেন৷ 

ঝুঁকিপূর্ণ এই যাত্রাপথে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে থাকে৷ অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংস্থা জানায়, চলতি বছর এখন পর্যন্ত সাগর পাড়ি দিতে গিয়ে এক হাজার ৭৬৫ জন নিঁখোজ অথবা নিহত হয়েছেন৷ 

আরআর/জেডএইচ (এএফপি)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন