বলকান রুটে অনিয়মিত অভিবাসন বন্ধে ইইউ'র চাপের মুখে ভিসানীতি পরিবর্তন ও সীমান্তে মানবপাচার চক্রের বিরুদ্ধে অভিযান বৃদ্ধি করেছে সার্বিয়া কর্তৃপক্ষ। ছবি:  উইকিমিড়িয়া
বলকান রুটে অনিয়মিত অভিবাসন বন্ধে ইইউ'র চাপের মুখে ভিসানীতি পরিবর্তন ও সীমান্তে মানবপাচার চক্রের বিরুদ্ধে অভিযান বৃদ্ধি করেছে সার্বিয়া কর্তৃপক্ষ। ছবি: উইকিমিড়িয়া

সার্বিয়া পুলিশের একটি বিশেষ অভিযানে ১০ সন্দেহভাজন মানবপাচার চক্রের সদস্যকে আটক করা হয়েছে। এই চক্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা মাত্র এক মাসে অবৈধভাবে কমপক্ষে ৪০০ অভিবাসীকে বুলগেরিয়া থেকে সার্বিয়ায় পাচার করেছে।

বলকান রুটে চলছে সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর সাড়াশি অভিযান। অনিয়মিত অভিবাসন ঠেকাতে সম্প্রতি ইইউ’র পুলিশ সংস্থা ইউরোপোলও যৌথ অভিযান চালিয়েছে এই রুটে। 

গত সপ্তাহে বুলগেরিয়া তুর্কি সীমান্তে চলা গ্রেপ্তার অভিযানের পর এবার সার্বিয়া বুলগেরিয়া সীমান্তেও দেখা গেল একই দৃশ্য। 

সার্বিয়া পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে গত মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত সক্রিয় একটি ‘গ্যাং’ এর ১০ জন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মানবপাচারের অভিযোগ আনা হয়েছে। এই চক্রের সদস্যদের বয়স ১৮ থেকে ৩৮ এর মধ্যে।

আরও পড়ুন>>‘এখানে অভিবাসীর চেয়ে দালালের সংখ্যা বেশি’

পুলিশ আরও জানায়, এস এন আদ্যক্ষরের এক ব্যক্তি এই গ্রুপের দলনেতা। যার বয়স ২৪ বছর। সন্দেহভাজন পাচারকারীদের সার্বিয়ার বাকা পালঙ্কা, রুমা এবং পেচিনসি এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তে বলা হয়েছে, চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে এস.এন. আদ্যক্ষরের এই ব্যক্তি চক্রের অন্যান্য সদস্যদের সহায়তায় অবৈধভাবে বুলগেরিয়া থেকে কমপক্ষে ৪০০ অভিবাসীকে সার্বিয়ায় নিয়ে আসে। পরবর্তীতে তাদের সবাইকে রাজধানী বেলগ্রেডে স্থানান্তর করা হয়। সেখান থেকে তাদের পশ্চিম ইউরোপের বিভিন্ন দেশে যাত্রা করার কথা ছিল। 

পড়ুন>>বলকান রুটে অভিবাসীদের বিশ্রামের বেলগ্রেড

পুলিশ জানায়, বুলগেরিয়া থেকে সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেড পর্যন্ত পৌঁছে দিতে এই চক্রটি অভিবাসীদের কাছে থেকে জনপ্রতি ৪০০ ইউরো বা ৪০ হাজার টাকা করে নিয়েছে। 

গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে নগদ ৩,৪০০ ইউরো বা তিন লাখ ৪০ হাজার টাকা, তিনটি গাড়ি ও অসংখ্য মোবাইল ফোন পাওয়া গেছে।

চক্রের আরেক সদস্য এস আই আদ্যক্ষরের এক ব্যক্তিকে আটকের সময় তার অ্যাপার্টমেন্টে তল্লাশি চালিয়ে তিনটি পিস্তলও উদ্ধার করা হয়। আটককৃত সকলকে সংঘবদ্ধ অপরাধের জন্য নির্ধারিত অপরাধ ট্রাইব্যুনালে হস্তান্তর করা হবে বলে নিশ্চিত করেছে বেলগ্রেড কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন>>অনিয়মিত অভিবাসন ঠেকাতে মধ্য ইউরোপের দেশগুলোর নতুন ব্যবস্থা

বলকান রুটে অনিয়মিত অভিবাসন কমাতে সম্প্রতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের চাপে ভিসা নীতি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে সার্বিয়া৷ এর অংশ হিসেবে টিউনিশিয়া ও বুরুন্ডির নাগরিকদের ভিসামুক্ত প্রবেশাধিকার বাতিল করেছে দেশটি৷ এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে ইইউ৷


এমএইউ/এআই




 

অন্যান্য প্রতিবেদন