ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে প্রতিবছর হাজার হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান৷ ফাইল ফটো- গারেথ ফুলার/পিএ এয়্যার/পিকচার অ্যালায়েন্স
ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে প্রতিবছর হাজার হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান৷ ফাইল ফটো- গারেথ ফুলার/পিএ এয়্যার/পিকচার অ্যালায়েন্স

যুক্তরাজ্যের কেন্ট রাজ্যে অবস্থিত একটি অভিবাসীকেন্দ্রে বসবাসরত এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে৷ কয়েকদিন আগে তিনি ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে যুক্তরাজ্যে আসেন বলে ধারণা করা হচ্ছে৷

তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনও বিস্তারিত জানা যায়নি৷ তবে কেন্দ্রটিতে আশ্রয়প্রদান বিষয়ে সরকারের পদক্ষেপের সমালোচনা করে আসছিল মানবাধিকার সংস্থাগুলো৷  

যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, কেন্টে অবস্থিত ম্যানস্টন মাইগ্রেন্ট সেন্টারে ঐ ব্যক্তি অসুস্থ বোধ করায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ শনিবার তিনি মারা যান৷ তার পরিবারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা চলছে৷ 

বিবৃতিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রাণলয় আরো জানায় ‘‘আমাদের দায়িত্বে থাকা ব্যাক্তিদের নিরাপত্তা দিতে আমরা যথেষ্ট সচেষ্ট৷ নিহতের এই ঘটনায় আমরা গভীরভাবে শোকাহত৷’’  

কোনো সংক্রমাক রোগে এই ব্যাক্তি মারা গেছেন কিনা সে বিষয়ে যথেষ্ট প্রমাণ তাদের হাতে নেই বলে জানায় মন্ত্রণালয়৷ 

তবে একটি অসমর্থিত সূত্র ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ানকে জানায়, নিহতের শরীরে সেপসিস বা ব্লাড পয়জনিং ধরা পড়েছিল৷ এমন রোগে অসুস্থ ব্যক্তিকে দ্রুত ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হয়৷   

উল্লেখ্য, ম্যানস্টনের এই ক্যাম্পটিতে তার আগেও অভিবাসনপ্রত্যাশীদের মধ্যে ডিপথেরিয়া, স্ক্যাবিসসহ নানা রোগ ছড়ানোর খবর পাওয়া গিয়েছিল৷ ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে আসা অভিবাসনপ্রত্যাশীদেরকে দীর্ঘমেয়াদে আশ্রয়প্রদান শিবিরে স্থানান্তরের আগে কাগজপত্র যাচাই-বাছাইয়ের জন্য ওই কেন্দ্রটিতে রাখা হয়৷ 

চ্যানেলে অভিবাসী ঠেকাতে ফ্রান্স-যুক্তরাজ্য নতুন চুক্তি

যুক্তরাজ্য সরকারের আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে সাগর পাড়ি দিয়ে আসা নারী ও শিশুসহ অভিবাসনপ্রত্যাশীদেরকে দিনের পর দিন এখানে অপেক্ষা করতে হয়৷ 

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ২৪ ঘণ্টার বেশি কেন্দ্রেটিতে এভাবে রাখাকে ‘বেআইনি এবং অমানবিক’ বলে মন্তব্য করেছে যুক্তরাজ্যের বেসরকারি সংস্থা ডিটেনশন অ্যাকশন৷ 

জানা গেছে, কেন্দ্রটিতে ১,৬০০ জনের থাকার ব্যবস্থা রয়েছে৷ কিন্তু গত অক্টোবরে শিবিরটিতে মোট চার হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশীকে রাখা হয়েছিল৷ পরে অবশ্য এই সংখ্যা কমে এক হাজারে এসে দাঁড়ায়৷ 

কেন্দ্রটি পরিদর্শন করেছেন এমন কয়েকজন জানান, তারা সেখানে আশ্রয়প্রার্থীদেরকে জেলে থাকা বন্দির মতো মেঝেতে ঘুমাতে দেখেছেন৷  

আশ্রয়প্রার্থীদের এভাবে রাখার বিষয়ে সরকারের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিয়েছে বেসরকারি সংস্থা ডিটেনশন অ্যাকশন৷ 

আরআর/এফএস (এপি)

 

অন্যান্য প্রতিবেদন